• বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:১৩ অপরাহ্ন |

বিজিবি সৈনিকের বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ

Nirjatonলালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটে হাতীবান্ধায় এক বিজিবি সৈনিকের বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগে স্থানীয় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। পঞ্চগড়ের ১৮ ব্যাটলিয়নের সৈনিক হযরত আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন তার স্ত্রী মোর্শেদা খাতুন সাথী।
মামলা সুত্রে জানা গেছে, প্রেম নিবেদনের মাধ্যমে গত ১২ ডিসেম্বর ২০০৯ সালে মোর্শেদা খাতুন সাথীর সঙ্গে বিয়ে হয় রিপনের। দাম্পত্য জীবন চলে ৪ বছর ধরে। মোর্শেদা খাতুন সাথীর কোল জুরে আসে এক ফুটফুটে পুত্র সন্তান। দাম্পত্য জীবনের এক পর্যায়ে গত ১৭ এপ্রিল ২০১১ সালে হযরত আলীর রিপনের বিজিবির সৈনিক পদে  চাকুরিতে যোগ দেন। বর্তমানে তিনি পঞ্চগড় জেলার ১৮ ব্যাটলিয়নে কর্মরত রয়েছেন। হযরত আলীর রিপনের ব্যাচ নং ৮২৮৭৫ পঞ্চগড়।
রিপন লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার পুর্ব ফকির পাড়া গ্রামের নুর ইসলামের পুত্র বলে জানা গেছে।
চাকুরি হওয়ার দু এক বছর যেতে না যেতেই হযরত আলীর রিপন টাকার প্রয়োজন এ অজুহাতে মোর্শেদা খাতুন সাথীকে  বাবার নিকট থেকে ২ লক্ষ টাকার জন্য চাপ দিতে থাকেন। সাথী এ টাকা দিতে অপারগতা জানালে তার জীবনে নেমে আসে নানা অত্যাচার ও নির্যাতন। রিপন এবং তার পিতা মাতার নির্যাতনের স্বীকার হয়ে গত ১০ এপিল ২০১৪ তারিখে সাথী হাতীবান্ধা স্বাস্থা কমপ্লেক্স ভর্তি হন। এ নিয়ে বড়খাতা ও ফকিরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদ্বয় দু বার বিচার করলেও তাদের নির্যাতন থেমে থাকেনি। বরং নির্যাতনের মাত্রা ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকে। সাথী নির্যাতনের স্বীকার হয়ে প্রথমে গ্রাম্য সালিশও পরে মহা পরিচালক, বিজিবি সদর দপ্তর পিলখানায়,রিজুওয়ান কমান্ডার বর্ডার গার্ড রংপুর, সেক্টর কমান্ডা বর্ডার গার্ড সদর দপ্তর ঠাকুরগাঁও,অধিনায়ক ১৮ বর্ডার গার্ড পঞ্চগড়ে বিচার চেয়ে আবেদন করলেও তা এখনও কোনরূপ বিচারের সুফল পায়নি। ফলে সাথী বাধ্য হয়ে হাতীবান্ধা ধানায় যৌতুক, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।
এ ব্যাপারে হাতীবান্ধা থানার (ওসি) আনোয়ার হোসেন মামলা দায়ের করার কথা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় মামলার এজাহারভুক্ত আসামী রেবেকা সুলতানাকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ