• রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৬:০৬ পূর্বাহ্ন |

খানসামায় সংখ্যালঘু নির্যাতনের মামলায় আসামী গ্রেফতার

Khansama news (nimai) 29.05খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের খানসামায় সুদে টাকা নেয়া দেয়াকে কেন্দ্র করে শিকলে বেধে সংখ্যা লঘু নির্যাতনের ঘটনা পত্রিকায় প্রকাশের পর মামলা নিয়েছে থানা। ওই মামরার আসামীকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করছে পুলিশ।
সূত্রমতে, উপজেলার ভেড়ভেড়ী ইউনিয়নের গোয়ালপাড়ার কেরু চন্দ্র ছেলে নিমাই চন্দ্র রায় নামে এক দরিদ্র  একই এলাকার সুদ ব্যবসায়ী মমতাজ আলীর ছেলে বাবলু রহমানকে অতিরিক্ত সুদের টাকা দিতে না পারায় নিমাইকে রাতের শিকলে বেধে নির্যাতনে ঘটনা ঘটে। খবর খানসামা থানা নিমাইকে উদ্ধার করলেও মামলার ব্যাপারে নিষ্ক্রিয়া ভুমিকা দেখায়। এতে ঘটনা অন্য দিকে প্রবাহিত হতে থাকলে নির্যাতিত নিমাই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে একটি লিখিত আবেদন ইমেইলে প্রেরণ করেন। আবেদনে জেলা প্রশাসক, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান এবং প্রেস কাবকে অনুলিপি করেন। পরে ঘটনাটি সিসিনিউজসহ বেশ কয়েকটি দৈনিক পত্রিকায় সংবাদটি প্রকাশিত হলে পুলিশ মামলার গ্রহণ করে এবং বৃস্পতিবার দুপুরে আসামী বাবলু রহমানকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আব্দুল করিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং আইনি প্রক্রিয়ায় তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য যে, নিমাই চন্দ্র রায় অভাবের তাড়নায় একই এলাকার মমতাজ আলীর ছেলে বাবলু রহমানের কাছে ৪ হাজার টাকা সুদ শর্তে গ্রহণ করেন। ৭ মাসের মধ্যে আসল সহ ২০ হাজার টাকা প্রদান করেন। কিন্তুটাকা প্রদানের সময় বাবলুর রহমান ফাকা স্ট্যাম্পে নিমাই চন্দ্র রায়ের সই নিয়ে রাখায় পরবর্তীতে ওই স্ট্যাম্পের বলে তার কাছে আরও ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা না পেয়ে ২৪ মে রাতে তার দলসহ এসে নিমাই চন্দ্রর স্ত্রীকে মারধর ও বাড়ি ভাংচুর করে নিমাইকে তুলে নিয়ে শিকলে বেধে নির্যাতন করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ