• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

হারিয়ে যাচেছ গ্রামবাংলার চিরচেনা রসালো ফল

Atta-Lotkanশাহজাহান আলী, সিসিনিউজ: সৈয়দপুরে হারিয়ে যাচেছ পল্লীর চিরচেনা রসালো নানা ফল। পল্লী গাঁয়ের চিরচেনা কদবেল, ডেউয়া, করমচা, কামরাঙা, লটকন, চালতা, তেঁতুল, বিলেতি গাব, বেতফল, খেঁজুর, জামরুল, জাম, বেল, আমড়া, জলপাই, বাতাবি লেবু, গোলাপজাম, আতা, তাল, কাঠবাদামসহ বিভিন্ন প্রকারের অসংখ্য ফল আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। পল্লী গাঁয়ের ঝোপ-ঝাড় কেটে ফেলায় আগামি ১০ বছরের মধ্যে চিরচেনা এসব ফলের দেখা আর কোনদিনই মিলবে না বলে অনেকের আশংকা। ঝোপঝাড়ের এসব ফলের চারা সাধারণত মানুষ পরিকল্পিতভাবে রোপণ করেন না। বাড়ির কোণে কিংবা ঝোপঝাড়ের মধ্যে মাঠে অথবা ক্ষেতের আইলের কোথাও প্রকৃতির নিয়মে কিংবা পশুপাখির বিষ্ঠায় বীজবাহিত হয়ে এসব ফলের গাছ জন্মায়। পরবর্তীতে এসব গাছের ফলই আমাদের রসনার স্বাদ যোগায়। এলাকার বয়োবৃদ্ধরা জানান, আগেকার সময়ে বর্ষা মৌসুমে কিংবা অন্য যে কোনো মৌসুমে গ্রামের জনপদে এসব ফলের প্রচুর দেখা মিললেও নির্বিচারে বৃক্ষ নিধনের ফলে এসব রসালো ফলের গাছ এখন আর তেমন চোখে পড়েনা। বাজারে এসব ফলের চাহিদা থাকা সত্বেও ফলের আবাদ কমে যাওয়ায় এখন আর সেভাবে এসব ফল সরবরাহ করা সম্ভব হয়না। ব্যবসায়ীরা জানান, চিরচেনা কদবেল, ডেউয়া, বিলেতি গাব, বেতফল, খেজুরসহ রসালো ফল এখন আর আগের মত পাওয়া যায় না।  ফলে দেশীয় এসব ফল খাওয়ার মজা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন অনেকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ