• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

সাজা মওকুফে রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

High-Courtসিসিনিউজ: মৃত্যদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিসহ সাজাপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তিকে রাষ্ট্রপতির ক্ষমা করে দেওয়ার ক্ষমতার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।

রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ‘হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে জনস্বার্থে এই রিট করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। সংবিধানের ৪৯ অনুচ্ছেদ অনুসারে দণ্ডপ্রাপ্তদের ক্ষমা করা বা দণ্ড মওকুফ বা কমানোর ক্ষমতা রয়েছে রাষ্ট্রপতির।

রিটে সংবিধানের ৪৯ অনুচ্ছেদের সঙ্গে ২৭, ৩১, ৩৫, ১১১ ও ১১২ অনুচ্ছেদের সম্পর্ককে কেন সাংঘর্ষিক ও বিপরীতমুখী ঘোষণা করা হবে না, সে মর্মে রুল জারিরও আবেদন জানানো হয়েছে রিটে।

রিটে বিবাদি করা হয়েছে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতির সচিবালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব, আইন মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ অ্যান্ড ড্রাফটিং বিভাগের সচিব এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সচিবকে।

উল্লেখ্য, সংবিধানের ৪৯ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘কোনো আদালত, ট্রাইব্যুনাল বা অন্য কোনো কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত যেকোনো দণ্ডের মার্জনা, বিলম্বন ও বিরাম মঞ্জুর করিবার এবং যেকোনো দণ্ড মওকুফ, স্থগিত বা হ্রাস করিবার ক্ষমতা রাষ্ট্রপতির থাকিবে।’

অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ জানান, বিচার বিভাগ কাউকে সাজা দিতে পারেন। দেখা গেল পরে রাষ্ট্রপতি তাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। তাহলে বিচার বিভাগে স্বাধীনতা কীভাবে রক্ষিত হলো। আর এটা সংবিধানে সংরক্ষিত নাগরিকের মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী।

তিনি আরো বলেন, বিচার পাওয়ার অধিকার সব নাগরিকেরই রয়েছে। সে হিসেবে আদালত থেকে কেউ বিচার পেল, কিন্তু রাষ্ট্রপতি যদি সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে ক্ষমা করে দেন তাহলে তো আবেদনকারী বিচার পেয়েও বিচার থেকে বঞ্চিত হলো। তবে কবে এই রিটের শুনানি হবে তা নিশ্চিত করতে পারেনি কোনো পক্ষই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ