• সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন |

চিরিরবন্দরে গৃহবধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ ॥ আটক ৩

Mader-Logoদিনাজপুর প্রতিনিধি: চিরিরবন্দরে পারিবারিক কলহের জের ধরে শেফালী (২২) নামে এক গৃহবধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনা চিরিরবন্দর উপজেলার ১০নং পুনট্টি ইউনিয়নের সাহাপুর (কামারপাড়া) গ্রামের।
নিহতের পরিবাবারিক সূত্রে জানা গেছে, ৪ বছর পূর্বে চিরিরবন্দর উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের মোঃ আব্দুস সালামের মেয়ে শেফালীর (২২) বিয়ে হয় একই গ্রামের মোঃ সাইদুল ইসলামের ছেলে মোঃ আবু সাঈদ’র সাথে। বিয়ের পর হতেই স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই সুন্দরভাবে দাম্পত্য জীবনযাপন করে আসছিল। এরই মধ্যে কোলে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। শেফালীকে তার শ্বাশুড়ীর পছন্দমত না হওয়ায় বিয়ের পর হতেই নানাভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো। এ বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল।
গত ০২-০৫-২০১৪ তারিখে আবু সাঈদ তার স্ত্রী শেফালীকে রাতে মারধর করে। গত ০৩-০৬-২০১৪ তারিখে সকালে আবু সাঈদ ও তার বাবা অন্যের বাড়ীতে ইরি বোরো ধান কাটার জন্য যায়। সকাল ১১ টার সময় লোক মুখে স্ত্রীর মৃত্যুর কথা জানতে পারে। আবু সাইদ জানান, আমার স্ত্রীকে সকালে ভাল দেখেছিলাম, কথাও বলেছি। সকালে আমার মা ও বোন রুজিনা (২৩) ও আমার বোন জামাই খোকন বাড়ীতে ছিল। পরে আর কি হয়েছে, আমি আর কিছু জানি না।
এলাকাবাসী শেফালী হত্যার অভিযোগে শ্বাশুড়ী সানোয়ারা (৩৮) ও স্বামী- আবু সাঈদ (২৭) ও বোন রুজিনাকে (২২) আটক করে। রোজিনার স্বামী খোকন (৩৪) পালিয়ে যায়। ৫নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্যের সংবাদ পেয়ে চিরিরবন্দর থানার এসআই রফিক ও এএসআই সাজু সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশের সুরত হাল রিপোর্ট তৈরি করেন এবং লাশ ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন।
এ ব্যাপারে এসআই রফিক জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, শেফালীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ