• বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩২ পূর্বাহ্ন |

পাস না করেই ছাত্রলীগ সভাপতি

26604_b6সিসিনিউজ: মো. জসীম উদ্দিন। ২০১০ সালের ১০ই জুলাই ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি তাকে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত করে। ওই সময়েই তার ছাত্রত্ব অবৈধ- এ অভিযোগ করেছিলেন এক ছাত্রলীগ নেতা। কিন্তু দুই দিন সময় নিয়ে তিনি সরকারি বরিশাল কলেজের বিএসএস (ক্লাস রোল-২২৫) প্রথম বর্ষের ছাত্র তা প্রমাণ করে দিলেন। এরপর আর তার সভাপতি পদ নেয় কে? কিন্তু বিপত্তি বাধে চলতি বছর। মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসীম উদ্দিন যে এসএসসি পাসও করেননি তা প্রমাণ হয়ে যায়। অনুসন্ধানে জানা গেছে, জসীম উদ্দিন সরকারি বরিশাল কলেজের ভর্তি ফরমে যে তথ্য দিয়েছেন তাতে উল্লেখ করা হয়েছে তার এসএসসি পাস ২০০৪ সালে ঝালকাঠির তিমিরকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে। তার এসএসসি পরীক্ষার রোল দেয়া হয়েছে ৪১২৭৮৯ এবং জিপিএ ৩.২৫। তবে বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে গিয়ে দেখা যায় ২০০৪ সালে এসএসসির ওই রকম কোন রোল ছিল না। অপরদিকে তার বিএসএস ভর্তি ফরমের তথ্যানুযায়ী এইচএসসি পাস দেখানো হয়েছে ২০০৮ সালে সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ থেকে। তার পরীক্ষার রোল ৬০৭৯০১, জিপিএ ৪.১০। বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে ওই বছর এ রোলে সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ থেকে পরীক্ষা দিলেও তিনি হচ্ছেন মো. কামাল উদ্দিন। যার এইচএসসির জিপিএ ৩.৩০। অর্থাৎ বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসীম উদ্দিন এসএসসি ও এইচএসসি পাসই করেননি। ভুয়া সনদ দিয়ে ভর্তি হয়েছেন সরকারি বরিশাল কলেজে বিএসএস-এএ। আর বরিশাল কলেজের বিএসএস ভর্তির সুবাদে হয়েছেন মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি।
গত বুধবার বিষয়টি জানাজানি হলে জসীম উদ্দিন সরকারি বরিশাল কলেজে গিয়ে দ্রুত তার ছাত্রত্ব বাতিলের আবেদন করেন। একই সঙ্গে তার ভর্তির ফরমটিও ফেরত চান। তিনি জানান, আমি মাদরাসা থেকে পাস করেছি। আর সেখানকার সনদ বরিশাল কলেজে দিয়ে এসেছি। তবে সরকারি বরিশাল কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর একেএম মজিবুর রহমান বলেন, জসীম উদ্দিন তার কলেজের বিএসএস-এর ছাত্র। তবে সে মঙ্গলবার হঠাৎ করেই ছাত্রত্ব বাতিলের আবেদন করেছেন। তার এসএসসি তিমিরকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও এইচএসসি সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ থেকে।
বরিশাল শিক্ষাবোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. শাহ আলমগীর জানান, বরিশাল শিক্ষাবোর্ডের রেকর্ড অনুযায়ী ২০০৪ সালে ঝালকাঠির তিমিরকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪১২৭৮৯ রোলের কোন পরীক্ষার্থী ছিল না। তবে এইচএসসি ২০০৮ সালের রেকর্ড অনুযায়ী সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ থেকে ৬০৭৯০১ রোলে যে বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে ওই বছর যে পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছে তার নাম মো. কামাল উদ্দিন। যার এইচএসসির জিপিএ ৩.৩০।
এদিকে এ ঘটনা জানাজানি হলে তোলপাড় শুরু হয় ছাত্রলীগে। তার প্রতিদ্বন্দ্বীরা এবার আইনের আশ্রয় নেয়ার কথা ভাবছেন বলে জানা গেছে।

উৎসঃ   মানবজমিন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ