• সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন |

নিষিদ্ধ হিযবুতের প্রকাশ্য তৎপরতা

Tahorirসিসিনিউজ: জঙ্গি তৎপরতার অভিযোগে প্রায় পাঁচ বছর আগে নিষিদ্ধ হিযবুত তাহরীর আবারো প্রকাশ্য প্রচারণা শুরু করেছে। নিষিদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও নিয়মিত ম্যাগাজিন প্রকাশ করে রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারণায় রয়েছে ধর্মভিত্তিক এ সংগঠনটি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘জালিম’ উল্লেখ করে তাকে ‘অপসারণ’-এর জন্য সামরিক বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে তারা। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকেও ‘জালিম’ বলে উল্লেখ করেছে হিযবুত তাহরীর। সংগঠনটির ‘তাহরীর ম্যাগাজিন’-এর সর্বশেষ সংখ্যায় (মে, ২০১৪) এসব কথা উল্লেখ করা হয়। একই ধরনের কথাবার্তা রয়েছে তাদের ফেসবুক পেজেও।
গোয়েন্দা সূত্রগুলো জানিয়েছে, সংগঠনটি নিষিদ্ধ হলেও কোত্থেকে এ ধরনের প্রকাশনা বের হচ্ছে তা খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। তবে সরকারি একটি গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা ভোরের কাগজকে জানিয়েছেন, মূলত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্র এ প্রকাশনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তারাই বেসরকারি কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সংগঠিত করছে। রাজধানীর নীলক্ষেতের একটি কম্পিউটার কম্পোজের দোকানে ওই ম্যাগাজিনটির কম্পোজ হয়েছে বলেও তাদের কাছে প্রাথমিক তথ্য রয়েছে।
ভোরের কাগজের কাছে থাকা গত মাসের সংখ্যাটি ২০ পৃষ্ঠার। ম্যাগাজিনটির প্রচ্ছদেই বলা হয়েছে, বর্তমান সরকার দেশকে ফেরাউনী রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। এ ছাড়া ‘জালিম পিতার জালিম কন্যা শেখ হাসিনা অপহরণ, গুম ও হত্যাকান্ডের মাধ্যমে দেশকে ফেরাউনী রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়’ বলেও তাতে উল্লেখ করা হয়েছে। ইসলামি রাষ্ট্র কায়েমে দেশবাসীকে ঝাঁপিয়ে পড়ারও আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি। হেফাজতে ইসলামের মতো এ সংগঠনটিও সরকার ‘উৎখাত’-এর প্রকাশ্য তৎপরতায় নেমেছে। অবশ্য এক্ষেত্রে সংগঠনটি বিএনপিকেও ছাড় দিতে নারাজ। হিযবুতের ফেসবুক পেজে বলা হয়েছে, ‘ইয়্যুথস ডিমান্ড দ্য ডাউনফল অব হাসিনা-খালেদা রেজিম’।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নামে-বেনামে গোপনে-প্রকাশ্যে চলছে সংগঠনটির কার্যক্রম। অব্যাহত রয়েছে তাদের দাওয়াতি কর্মসূচিও। ইন্টারনেটের মাধ্যমেও অব্যাহত রয়েছে দলীয় প্রচারণা। দেয়ালে সাঁটানো হচ্ছে সরকারবিরোধী পোস্টার। সংগঠনটির লিফলেটে সেনাবাহিনীর সমর্থন-প্রত্যাশায় বলা হয়েছে- জালিম হাসিনা এবং আওয়ামী-বিএনপি শাসক গোষ্ঠীকে অপসারণ করে, হিযবুত তাহরীরের নেতৃত্বে খিলাফত প্রতিষ্ঠায়, সামরিক বাহিনীর নিষ্ঠাবান অফিসারদের কাছে দাবি জানাতে হবে।
গোয়েন্দা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শক্ত ভিত গড়ে তোলার চেষ্টায়ও মরিয়া হিযবুত। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রদের টার্গেট করে দল ভারী করার কাজও চলছে। নিষিদ্ধ সংগঠন হিযবুত তাহ্রীরের অন্যতম টার্গেট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নজর এড়িয়ে হলগুলোতে গোপনে, অনেক সময় প্রকাশ্যেও চলছে সংগঠনটির কার্যক্রম। দেশের শ্রেষ্ঠ এ বিদ্যাপীঠ থেকেই মনিটরিং করা হচ্ছে সংগঠনটির দেশব্যাপী নেটওয়ার্ক।
জানা গেছে, নিষিদ্ধ হলেও ব্যাপকভাবে সক্রিয় রয়েছে হিযবুত তাহরীর। নারায়ণগঞ্জে ৭ খুনে র‌্যাবের প্রশ্নবিদ্ধ হওয়াকে সংগঠনটি একটি বড় সুযোগ হিসেবে দেখছে। এ সুযোগে সারা দেশে নিয়মিত চলছে সংগঠনটির দলীয় কার্যক্রম। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই তাদের তৎপরতা সবচেয়ে বেশি। এ লক্ষ্যে সংগঠিত করা হচ্ছে সরকারি-বেসরকারি কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের। সরকারবিরোধী অপপ্রচারের অংশ হিসেবে সংগঠনের মুখপত্র ‘তাহরীর ম্যাগাজিন’-এ নিয়মিত কুৎসা রটনা করা হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে।
গোয়েন্দা সূত্র জানায়, হিযবুত তাহরীরের লন্ডন অফিস থেকে এ পরিকল্পনার ছক তৈরি করা হয়েছে। আর্থিক সুবিধার লোভে শিক্ষার্থীদের একটি অংশ তাদের আহ্বানে সাড়াও দিচ্ছে। সংগঠনটির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নেতার ব্যবহৃত এক ডায়েরি থেকে তারা জানতে পেরেছেন, ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটসহ বিবিএর প্রায় ২৫ জন শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে হিযবুতের সাংগঠনিক কাজ পরিচালনা করছে। এ বিষয়ে পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, হিযবুতের কর্মকা- প্রকাশ্যে চলছে বললে ভুল হবে। তারা গোপনে নানান প্রচারণা চালায়। তবে আমরা তাদের ধরতে নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছি। গত মাসের শেষ দিকে চট্টগ্রাম থেকে ৭ জনকে আটক করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, হিযবুত তাহরীরের বাংলা অর্থ ‘মুক্তির দল’। ইসলামি মতাদর্শভিত্তিক এই রাজনৈতিক দলটি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। বাংলাদেশে ২০০১ সাল থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে হিযবুতের কার্যক্রম শুরু হয়। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সংগঠনটিকে জননিরাপত্তার জন্য হুমকি স্বরূপ উল্লেখ করে ২০০৯ সালের ২২ অক্টোবর নিষিদ্ধ করে। বিশ্বের অন্য অনেক দেশেও নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছে সংগঠনটি।

উৎসঃ   ভোরের কাগজ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ