• শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৫ পূর্বাহ্ন |

নারায়ণগঞ্জ উপ-নির্বাচনে চূড়ান্ত লড়াইয়ে ৪ প্রার্থী

ECসিসিনিউজ: নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনের উপনির্বাচনের চূড়ান্ত লড়াইয়ে হবে চারজনের মাঝে। সোমবার মনোনয়ন  প্রত্যাহারের দিন দুইজন প্রত্যাহার করায় এখন চূড়ান্ত লাড়াইয়ে টিকে আছেন চার জন। এর আগে বাছাইয়ে দু’জনের মনোনয়ন বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। ১৩ জন মনোনয়ন পত্র দাখিল করলেও সবশেষে চার জন প্রার্থী টিকে আছেন মূল লাড়াইয়ে। আগামী ২৬ জুন ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
চার প্রার্থী হচ্ছেন, আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানের বড় ভাই জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী ও বিকেএমইএ সভাপতি সেলিম ওসমান, এ আসনের সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের পদত্যাগী আহবায়ক এবং বর্তমানে নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এস এম আকরাম, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের জেলা কমিটির সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট মামুন সিরাজুল মজিদ।
সোমবার ছিল মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। উপ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মিহির সারওয়ার মোর্শেদ জানান, নির্বাচনে বৈধ ৬জন প্রার্থীর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়া মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের নেতা ইকবাল সিদ্দিকী মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন। এখন নির্বাচনে রয়েছে ৪জন প্রার্থী।
প্রসঙ্গত ঋণ খেলাপীর অভিযোগে সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহবায়ক রফিউর রাব্বি ও সমর্থনকারী ভোটারদের স্থান সঠিক না থাকায় বিএনএফ প্রার্থী আবু হামিদুর রেজা খান ভাষানীর মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। পরে রফিউর রাব্বি এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেলও সেটা খারিজ হয়ে যায়।
মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করলেও জমা দেয়নি বিরোধী দলের নেত্রী রওশন এরশাদের রাজনৈতিক সচিব গোলাম মসিহ,  সম্প্রতি জাতীয় পার্টিতে যোগ দেওয়া শামীম মিয়া, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিএম আরাফাত ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শহীদ আহমেদ সুমন।
জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসিম ওসমানের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। ২৯ এপ্রিল দিনগত রাত ১টায় ভারতের দেরাদুনের একটি কিনিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান নাসিম ওসমান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ