• শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:১৫ পূর্বাহ্ন |

নীলফামারীতে সহপাঠির কৌশলে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল ফাতেমা

Ballo Bibahoনীলফামারী প্রতিনিধি: সহপাঠির কৌশলের কারনে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল ফাতেমা আক্তার (১১) নামের ষষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রী। সব আয়োজন সম্পন্ন হলেও ফাতেমার এক সহপাঠির অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঐ বিয়ে বন্ধ করার নির্দেশ দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। ফাতেমা জেলার সদর উপজেলার গোরগ্রাম ইউনিয়নের বড়াইবাড়ি গ্রামের কীত্তনিয়া পাড়ার আজাহার ইসলামের মেয়ে এবং কিত্তিনিয়া পাড়া দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী।
এলাকাবাসি জানায়, রোববার রাতে নীলফামারী পৌর এলাকার নিউ বাবুপাড়ার নূর ইসামের ছেলে আকাশ ইসলামের (১৭) সাথে ফাতেমার বিয়ের জন্য সমস্ত আয়োজন সম্পন্ন করা হয়। উভয় পরিবারের সদস্যরা ব্যস্ত বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা নিয়ে। বরযাত্রী আসলেই সম্পন্ন হবে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। এসময় ফাতেমার এক সহপাঠি বাল্য বিয়ের বিষয়টি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেত আলীকে অবহিত করেন। ঐ সহপাঠির অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেত আলী মেয়ের বাবাকে বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দিলে বিয়ে বন্ধ হয়ে যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ছাত্রীর ঐ সহপাঠি বলেন, ‘ফাতেমা ও আমি একই সাথে কিত্তিনিয়া পাড়া দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রণীতে পড়ি। তার বিয়ের বিষয়টি জেনে রাতেই আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিয়ে বন্ধের জন্য অনুরোধ করি।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেদ আলী জানান, মেয়ের বাবাকে বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে অবগত করে বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দিলে মেয়ের বাবা বিয়ে বন্ধ করে দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ