• শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫০ পূর্বাহ্ন |

ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন বন্ধ হচ্ছে ভারতে

Rnews24.com Fernech_23695.pngঅর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক: ফেয়ারনেস ক্রিমের জাদুতে গায়ের কালো রঙ সাদা রঙে বদলে গেলেই নাকি আত্মবিশ্বাসে টইটম্বুর হয়ে সবার কাছে আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে সেই কৃষ্ণকলি। বিয়ে থেকে কলেজ ক্যাম্পাস অথবা চাকরির বাজার সর্বত্রই বেড়ে যাবে কৃষ্ণকলির দাম। হয়ে যাবেন নজরকাড়া সুন্দর। এ ধরনের ‘প্রতারণামূলক’ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন এবার বন্ধ হচ্ছে ভারতে।

চরম বর্ণ ও লিঙ্গ বৈষম্যমূলক ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন হরহামেশাই প্রচার হচ্ছে চ্যানেলগুলোতে। মেয়েদের পাশাপাশি বর্তমানে ছেলেদের জন্যও ফেয়ারনেস ক্রিম এনেছে বিভিন্ন কোম্পানি। এসব ক্রিমের বিক্রি বৃদ্ধি চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় কীভাবে সাধারণ মানুষ এসব বিজ্ঞাপনের কথা অন্ধভাবে বিশ্বাস করেন।

ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন থেকে সাদা রঙের প্রতি মানুষের অন্ধ আনুগত্যের বিষয়টি প্রকাশ পেয়েছে। বর্ণবৈষম্যের শেকড় যে মানুষের অন্তরের গভীরে গেঁথে গেছে তার প্রমাণ ঘরে ঘরে ফেয়ারনেস ক্রিমের উপস্থিতি। আর এই বৈষ্যমের ওপর দাঁড়িয়ে ফর্সা হওয়ার জাদুমলম বিক্রি করছে বহু কোম্পানি। যারা এই ফেয়ারনেস ক্রিম কেনেন তারা হয়তো কোনওদিন ভেবে দেখেননি এই কোম্পানিগুলোর প্রতিশ্রুতি ঠিক হলে এতদিনে অন্তত ৭০ ভাগ মানুষের গায়ের রঙ ধবধবে সাদা হত।

তবে অবাধ বর্ণবৈষম্যমূলক বিজ্ঞাপন বন্ধ করতে তৎপর হয়েছে অ্যাডভার্টাইজিং স্ট্যান্ডার্ডস কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া (আসকি)। স্বশাসিত এ সংস্থাটি মূলত ক্রেতাদের স্বার্থ নিয়ে কাজ করে। ফেয়ারনেস ক্রিমের বিরোধিতা করে সম্প্রতি তারা একটি নির্দেশিকা জারি করেছে ফেয়ারনেস ক্রিম, ফেস ওয়াস, সাবান প্রস্তুতকারী কোম্পানি ও বিজ্ঞাপন এজেন্সিগুলোর প্রতি। সেই নির্দেশিকা অনুযায়ী- ফেয়ারনেস ক্রিম প্রস্তুতকারী কোনও কোম্পানি এমন কোনও বিজ্ঞাপন তৈরি করতে পারবে না যেখানে গায়ের রঙের জন্য বিভেদ দেখানো হবে। যাদের গায়ের রঙ কালো, তারা জীবনে ব্যর্থ, অবসাদে ভুগছে, খারাপ দেখতে, অসহায় এমনটাও দেখানো যাবে না। এছাড়া পোস্টপ্রোডাকশন এফেক্টের সাহায্যে দেখানো যাবে না যে, ফেয়ারনেস প্রোডাক্ট ব্যবহার করার পর নিমেষেই কেউ ধবধবে সাদা হয়ে গিয়েছে।
সূত্র: জিনিউজ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ