• সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন |

চালকবিহীন গাড়ি নিয়ে কাজ করছে গুগল

google_35379প্রযুক্তি ডেস্ক : ইন্টারনেট জায়ান্ট গুগল গত কয়েক বছর ধরে চালকবিহীন গাড়ি নিয়ে কাজ করছে ৷ তাদের এই গাড়িটি ইতিমধ্যে হাইওয়েতে নিরাপদভাবে চলাচলও করেছে ৷ তাই এবার, শহরের রাস্তায় চলার চেষ্টা করছে আধুনিকতম এই গাড়ি ৷
২০০৯ সাল থেকে গুগলের কয়েকটি চালকবিহীন গাড়ি হাইওয়েতে যাতায়াত করেছে ৷ এই সময়ে কোনো রকম দুর্ঘটনা ছাড়াই গাড়িগুলো প্রায় সাত লাখ মাইল পথ পাড়ি দেয় বলে জানিয়েছে গুগল৷
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার হাইওয়েতে যেহেতু একটি নির্দিষ্ট লেন ধরে গাড়িগুলো চলেছে তাই মোটামুটি সহজই ছিল সেই পথ চলা ৷
কিন্তু বাণিজ্যিকভাবে চালকবিহীন গাড়ি চালনা শুরু করতে হলে তাকে শহরের রাস্তায় চলাচলেরও উপযোগী হতে হবে । সে লক্ষ্যে পরীক্ষা-নিরীক্ষার দ্বিতীয় পর্যায় শুরু করেছে গুগল৷ এ ব্যাপারে গুগলের অফিসিয়াল পোস্টে একটি ব্লগ লিখেছেন এই প্রকল্পের পরিচালক ক্রিস উর্মসন৷
তিনি জানিয়েছেন, গাড়ির সফটওয়্যারে অনেক উন্নতি আনা হয়েছে যেন গাড়িটি নিজে থেকেই পথচারী সহ রাস্তায় থাকা অন্যান্য যানবাহনের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে পারে৷ এছাড়া কোথাও ট্রাফিক পুলিশ ‘স্টপ’ লেখা কিছু নিয়ে দাঁড়িয়ে গেলে সে অনুযায়ী কাজ করা কিংবা কোনো সাইকেল আরোহী যদি হাত দেখিয়ে দিক পরিবর্তন করতে চায় তাহলে সেটা বুঝে সেই অনুযায়ী চলা এ সব কাজে যেন চালকবিহীন গাড়ি পারদর্শী হয়ে ওঠে সেই চেষ্টা চলছে ৷
ভিডিও ক্যামেরা, রাডার সেন্সর ও লেজারের ব্যবহার এবং আশেপাশের গাড়ি থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে সামনে চলতে সমর্থ হবে এই গাড়ি।
গুগলের আশা, ২০১৭ সালের মধ্যে চালকবিহীন গাড়ির প্রযুক্তি ব্যবহারের উপযোগী হবে ৷ অর্থাৎ সে সময় হয়ত গুগলের বাইরের গাড়ি চালকদের পরীক্ষামূলকভাবে এই গাড়ি চালাতে দেওয়া যাবে ৷
এরপর সেটাকে পুরোপরি বাণিজ্যিকীকরণ করে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে আরও কয়েক বছর লাগবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা৷
স্বয়ংক্রিয় যানবাহন বিষয়ে বিশেষজ্ঞ ডেভিড আলেকজান্ডারের ধারণা, চালকবিহীন গাড়ি হাতে পেতে ব্যবহারকারীদের ২০২৫ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে৷
তবে গুগল নিজেই চালকবিহীন গাড়ি নিয়ে আসবে, নাকি তার উদ্ভাবিত সফটওয়্যার কোনো গাড়ি নির্মাতা কোম্পানিকে দেবে, সেটা এখনো পরিষ্কার নয় ৷
উল্লেখ্য, চালকবিহীন গাড়ি নিয়ে যে শুধু গুগলই কাজ করছে তা নয় ৷ নিশান, ফল্কসভাগেন, টয়োটা, মার্সেডিজ-বেনৎস কোম্পানিও এক্ষেত্রে তাদের গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে৷


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ