• বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ন |

পার্বতীপুরে বিট কর্মকর্তার মিথ্যা মামলায় ছাত্র জেলহাজতে

Arrestমোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী: দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার মধ্যপাড়া সদর বিট অফিসারের বিরুদ্ধে নিরীহ কৃষকদের নামে মিথ্যা মামলা সহ বিভিন্ন হয়রানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সূত্র মতে, এলাকাবাসি দক্ষিণ হরিরামপুর মৌজার জে,এল নং- ১৬২, বন বিভাগ এলাকার জনগণের ১১২.৯৫ একর জমির রেকর্ড সূত্রে মালিক হওয়ায় দীর্ঘ দিন থেকে ভোগদখলে করে আলু, ভুট্টা, গম, ও ধানসহ বিভিন্ন রবি শষ্য চাষ-আবাদ করে আসা সত্বেও বিট অফিসার সনাতন কুমার সরকার জোর পূর্বক জমি আতœসাত করার লক্ষে  উক্ত জমি বন বিভাগের বলে অন্যায় ভাবে দাবী করে । রের্কডিয় মালিকদের নামে গাছ চুরি ও জমি জবর দখলসহ একাধিক  মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছেন এলাকার কৃষকদের। এলাকাবাসির চাপের মূখে বিট কর্মকর্তা সনাতন বদলীর পর নবাগত বিট কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন তার কর্মস্থলে এসে একই কায়দায় হীন র্স্বাথ চরিতার্থ করতে এলাকার রের্কডিয় জমির মালিকদের নামে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছেন। উক্ত মৌজার ৫৯২৪ দাগে নছির উদ্দীন গং,  ৫৯৬৩-৫৯৬৪ ইউসুব আলী গং, ৬০১৮- ৫৯৬১ দাগে  নুর মোহাম্মাদ গং, ৫৯১১ দাগে আকবর আলী শাহ্, ৫৯৫৯ দাগে ফেলানী গং, ৬০১৯ দাগে এনাতুল্লা গং ও ৫৯০৯ দাগে জামাতুল্লা গং দের নামে উল্লেখিত সম্পত্তি রেকর্ড থাকা সত্বেও এই বিট কর্মকর্তা রাতের অন্ধকারে অর্থের বিনিময়  চোরদের যোগসাজসে গাছ নিজেরাই বিক্র করে এলাকার নিরীহ লোকদের নামে মিথ্যা মামলা করে আসছে বলে অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে। আরও উল্লেখ থাকে যে, মধ্যপাড়া রেঞ্জ বিট কর্মকর্তা  আমজাদ হোসেন দায়িত্ব গ্রহণের পর ২৪ মধ্যে দিনে এলাকার শতাধিক নিরীহ মানুষ সহ আসাদুজ্জামান ও কামাল হোসেন স্কুল পড়–য়া ছাত্রদের নামেও ৩টি মিথ্যা মামলাসহ জি,ডি দায়ের করেন। মামলা নং- জি,আর- ২৩-৩-১৪, ৮৪, জি,আর ২২-৪-১৪, ১১০ ও জি,আর- ১৬-৫-১৪, ১২৩ এসব মিথ্যা মামলা হওয়ার কারণে এলাকাবাসির মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। বিট কর্মকর্তা মামলা দায়ের করার সাথে সাথে থানা পুলিশ সুষ্ঠু তদন্ত ছাড়াই মামলার চার্জসিট প্রদান করে। এতে করে স্কুল পড়–য়া ছাত্ররাও মিথ্যা গাছ চুরি অভিযোগে জেল হাজতে রয়েছে বলে অভিযোগ আছে। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে  যে কোন মুহর্ত্তে এলাকার সাধারণ মানুষ ফুঁসে আঠার সম্ভবনা রয়েছে। রাত হলে এলাকা পুলিশের ভয়ে পুরুষ শূন্য হয়ে পড়ে। এলাকার বিশিষ্টজনরা যাতে আর কোন মিথ্যা মামলা দিয়ে এলাকাবাসীকে হয়রানী করা না হয় সেজন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন। বিষয়ে  মধ্যপাড়া  বিট কর্মকর্তা নিকট জনতে চাওয়া হলে তিনি বলেন বন বিভাগের তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি এ্যাপিলেট কমিটি গঠন করিয়া কমিটির সিদ্ধান্ত  মোতাবেক গেজেট নং- ১৪২৫৩ ফর০৪-১২-১৯৫২ সালে গেজেট ভূক্ত হওয়া আমরা সরকারী সম্পত্তি বলে দাবী করে আসছ্।ি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ