• সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন |

ইরাকে বাংলাদেশিরা এখনও অনিরাপদ নয়

1ঢাকা: ইরাকে জাতিগত যুদ্ধ চললেও, দেশটিতে বসবাসকারী বাংলাদেশিরা নিরাপদে রয়েছেন বলে দাবি করেছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে প্রবাসী কল্যাণ ভবনে ‘রিপোটার্স ফর বাংলাদেশি মাইগ্রেন্টস-আরবিএম’ আয়োজিত মতবিনিয়ম সভায় তিনি এ দাবি জানান।

মতবিনিময় সভায় প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বলেন, ‘মন্ত্রণালয় ও সরকারের পক্ষ থেকে ইরাক প্রবাসীদের নিরাপত্তায় সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বাগদাদ দূতাবাস হট-লাইন চালু করেছে প্রবাসীদের সহায়তায়।’

সভায় আরবিএমের তরফ থেকে জানানো হয়, আল মনসুর এলাকায় অবস্থিত বাংলাদেশে দূতাবাসে রাষ্ট্রদূত এবং মাত্র দুইজন কর্মচারি রয়েছেন। হটলাইনে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। শ্রম কাউন্সিলরও নেই।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন জানান, ২০১২ সালে লিবিয়ায় গৃহযুদ্ধের সময় দেশটি থেকে ৩০ হাজার বাংলাদেশিকে সরকারি খরচে ফিরিয়ে এনেছিল প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়। প্রয়োজনে ইরাকেও এবার একই ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে ইরাক পরিস্থিতি এখনও লিবিয়ার মত বিপজ্জনক হয়ে ওঠেনি।

এসময় ইরাক প্রবাসীদের বরাত দিয়ে সাংবাদিকরা অভিযোগ করেন, আইএসআইএস’র দখলকৃত মান্দালি, তিকরিত শহরে আটকা পড়েছেন অনেক বাংলাদেশি। তারা খাবার, নিরাপত্তা সঙ্কটে আছেন। দূতাবাসের কাছ থেকে সহায়তা না পেয়ে দেশে টেলিফোন করে সহায়তা চাইছেন। বিদ্রোহীদের দমনে ওই এলাকায় বিমান হামলা হলে বাংলাদেশিদের জীবন বিপন্ন হতে পারে।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ সচিব ড. খন্দকার শওকত হোসেন, জনশক্তি রপ্তানিকারক এজেন্সিগুলোর সংগঠন বায়রা সভাপতি আবুল বাশার, আরবিএম আহ্বায়ক কেরামত উল্লাহ বিপ্লব।

জানা যায়, যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাকে প্রায় ২৫ হাজার বাংলাদেশি বাস করেন। তাদের অধিকাংশ রাজধানী বাগদাদে বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন। গেরিলারা বাগদাদের উপকণ্ঠে পৌছালেও মন্ত্রীর দাবি সব বাংলাদেশি এখনও নিরাপদে রয়েছেন।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুতে ইরাকে নতুন করে সংঘাত ছড়িয়ে পড়ে। দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সুন্নি গেরিলা সংগঠন ইসলামিক স্টেট ইন ইরাক অ্যান্ড সিরিয়া’ (আইএসআইএস)। তাদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর বেশ কয়েকবার সংঘর্ষও হয়েছে।

বাংলামেইল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ