• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১৪ অপরাহ্ন |

২৪ ঘণ্টার মানবিক যুদ্ধবিরতিতে সম্মত ইসরায়েল, হামাসের প্রত্যাখ্যান

85737_1সিসি ডেস্ক: জাতিসংঘের অনুরোধে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ২৪ ঘণ্টার মানবিক যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে ইসরায়েল। তবে হামাসের পক্ষ থেকে এ সময়ের মধ্যে কোনও ধরনের হামলা হলে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীও পাল্টা জবাব দেবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে তেল আবিব। হামাস এ যুদ্ধবিরতিকে প্রত্যাখান করেছে।

শনিবার গাজায় প্রথমে ১২ ঘণ্টার মানবিক যুদ্ধবিরতির কথা ঘোষণা করে ইসরায়েল। পরে রাতে ইসরায়েলি মন্ত্রিপরিষদের এক বৈঠকে আরও ১২ ঘণ্টা অস্ত্রবিরতির সময় বাড়িয়ে রবিবার স্থানীয় সময় মধ্যরাত পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়।

A Palestinian woman reacts as she carries her belongings from her destroyed house in Beit Hanoun town, which witnesses said was heavily hit by Israeli shelling and air strikes during an Israeli offensive, in the northern Gaza Stripএক বিবৃতিতে ইসরায়েলি কর্মকর্তা বলেছেন, “জাতিসংঘের অনুরোধে আগামীকাল (রবিবার) পর্যন্ত গাজায় মানবিক যুদ্ধবিরতিতে রাজ হয়েছে মন্ত্রিসভা। তবে এ সময়ের মধ্যে যুদ্ধবিরতির লঙ্ঘন করলে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী তার সমুচিত জবাব দেবে।”

তবে গাজার নিয়ন্ত্রণকারী ইসলামী স্বশস্ত্র গ্রুপ হামাস ইসরায়েলের এই যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব অস্বীকার করেছে। তারা বলেছে, ইসরায়েল যদি গাজা থেকে তাদের সেনাদের সরিয়ে না নেয় এবং হামলায় যারা ঘরবাড়ি হারিয়েছে তাদের ক্ষতিপূরণ না দেওয়া হয় তাহলে এই অস্ত্রবিরতি মানা হবে না।

হামাসের মুখপাত্র সামি অাবু জুহরি অাল জারিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “গাজা উপত্যকা থেকে সেনা সরিয়ে না নেওয়া পর্যন্ত কোনও মানবিক যুদ্ধবিরতিই পরিপূর্ণ হবে না। ক্ষতিগ্রস্তদের যদি তাদের ঘরবাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া না হয় এবং অাহতদের যদি সরিয়ে নেওয়ার অনুমতি না দেওয়া হয় তাহলে যুদ্ধবিরতি মানা হবে না।”

ইসরায়েল জানিয়েছে, ১২ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির শেষে হামাস যোদ্ধারা অাবার রকেট হামলা চালিয়েছে। তাই হামাস সীমান্তে যেসব ট্যানেল ব্যবহার করে এই হামলা চালাচ্ছে সেগুলো ধ্বংস করতে তাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। এছাড়া উভয় পক্ষই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছে।

হামাসের সশস্ত্র শাখা কাশেম ব্রিগেড স্বীকার করেছে যে, শনিবার তারা ১২ ঘণ্টার অস্ত্র বিরতি শেষে ইসরায়েলি ভূখণ্ড লক্ষ্য করে ৫টি স্বল্প পাল্লার এবং দুটি দূর পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।

এদিকে, গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ১৯ দিন ধরে চলা ইসরায়েলি তাণ্ডবে মোট এক হাজার ৩৩ জন নিহত হয়েছে। যাদের বেশির ভাগই বেসামরিক নাগরিক। এছাড়া অাহত হয়েছে প্রায় ৫ হাজার ৯০০ জন। অার ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ বলছে, হামাস যোদ্ধাদের হামলায় এখন পর্যন্ত তাদের দুই বেসামরিক নাগরিকসহ ৪২ সেনা নিহত হয়েছে।

সূত্র: বিবিসি, আলজাজিরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ