• শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১০:০২ অপরাহ্ন |

‘কারাবিধি মেনেই বিয়ে’

Minister Asaduzzmanসিসিনিউজ: স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, তাহের পুত্রের বিয়ে কারাবিধি মেনেই হয়েছে। রোববার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, আমার সঙ্গে জেলা প্রশাসক ও আইজি প্রিজনের কথা হয়েছে। তারা জানিয়েছেন, নিয়ম মেনেই তাহের পুত্রের বিয়ে হয়েছে। কারাগারে বিপ্লবের গায়ে হলুদ এবং বিয়ের পর কারাফটকে বর-কনের সাক্ষাতের ব্যাপারে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, জেলখানার কয়েদিরা গায়ে হলুদ করেছে, নাকি বাহির থেকে লোক ঢুকে করেছে সে ধরনের তথ্য আমার কাছে নেই। যতটুকু জানতে পেরেছি নিয়মের মধ্যে থেকেই সব হয়েছে। এর আগে শুক্রবার লক্ষ্মীপুর কারাগারে স্থানীয় মেয়র তাহেরের ছেলে আফতাব উদ্দিন বিপ্লব ও লক্ষ্মীপুর পৌরসভার লামচরী এলাকার জামায়াতে ইসলামীর নেতা ও সাবেক সংসদ সদস্য সফিকুল ইসলামের ভাতিজা আবুল খায়েরের মেয়ে সানজিদা আক্তার পিউর বিয়ের হয়। কারাগারে তাদের বিয়ের পর কারাবিধি নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তোলেন। যার প্রেক্ষিতে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। ২০০০ সালের ১৮ই সেপ্টেম্বর রাতে সাবেক পিপি ও জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট নুরুল ইসলামকে লক্ষ্মীপুর শহরের উত্তর মজুপুর একটি বাসা থেকে সাদা মাইক্রোবাসে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে হত্যা করে লাশ কয়েক টুকরা করে মেঘনা নদীতে ফেলে দেয় সন্ত্রাসীরা। পরে পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে আসে তাহেরের তিন ছেলে বিপ্লব, লাবু ও টিপুর নেতৃত্বে নুরুল ইসলামকে অপহরণ করা হয়। ওই রাতেই তাহেরের বাসায় তার স্ত্রী নাজমা তাহেরের উপস্থিতিতে নুরুল ইসলামকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। ২০০৩ সালের ৯ই ডিসেম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল এ মামলার রায় দেয়। রায়ে তাহেরের ছেলেসহ পাঁচ আসামির মৃত্যুদন্ড ও নয়জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দেয়া হয়। গত আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতা থাকাকালে প্রেসিডেন্ট জিল্লুর রহমান তার মৃত্যুদন্ডাদেশ মওকুফ করেন। কিন্তু যুবদলকর্মী কামাল ও শিবির নেতা মহসিন হত্যা মামলায় বিপ্লবের যাবজ্জীবন সাজা হয়েছিল। পরে প্রেসিডেন্ট আরও দুটি হত্যা মামলায় বিপ্লবের যাবজ্জীবন সাজা কমিয়ে ১০ বছর করেন।
উৎসঃ   মানবজমিন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ