• শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫৫ অপরাহ্ন |

সম্প্রচার নীতিমালা পোড়ালেন সাংবাদিকরা

86544_1ঢাকা: মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত সম্প্রচার নীতিমালা পুড়িয়ে ওই নীতিমালার প্রতিবাদ জানিয়েছে সাংবাদিকরা। একইসঙ্গে ওই নীতিমালা মোতাবেক কাজ না করারও ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

সম্প্রচার নীতিমালার খসড়া অনুমোদনের প্রতিবাদে মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

প্রতিবাদ সমাবেশে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি শওকত মাহমুদ তার বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুকে ‘গণমাধ্যমের শত্রু’ উল্লেখ করে বলেন, ‘এই ইনু মিথ্যাবাদী। কিছুদিন আগে তিনি বলেছিলেন, তথ্য কমিশন গঠনের আগে নীতিমালা গঠন করা হবে না। অথচ এখন কমিশনের আগেই নীতিমালা গঠন করা হয়েছে। এটা ঘোড়ার আগে গাড়িকে জুড়ে দেয়ার মতো।’

‘ইনুকে প্রেসক্লাবে দেখতে চাই না’ উল্লেখ করে তিনি প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান।

শওকত মাহমুদ আরও বলেন, ‘আমরা দেখবো। আপনারা কমিশন বানান, আর যাই করেন গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে যতই ষড়যন্ত্র করেন না কেন, আমরা এই নীতিমালা মানি না। এই মোতাবেক কাজ করবো না।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া আপনাদের আদর্শ। আপনারা অতীতেও তা করেছেন। এই কালো আইন আপনাদের রক্ষা করবে না। জনগণের রোষানলে পড়তেই হবে।’

টিভি চ্যানেল মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা চামচামি করবেন না। প্রতিবাদ করুন। রাজপথে নামুন। না হলে এর দায় আপনাদেরকে নিতে হবে।’

এই নীতিমালা বাতিল না করা পর্যন্ত তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কোনো প্রকার কথাবার্তা না বলারও প্রতিজ্ঞা করেন তিনি।

প্রতিবাদ সমাবেশে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রুহুল আমিন গাজী বলেন, ‘এই নীতিমালা মোতাবেক কোনো বাহিনীর বিরুদ্ধে নিউজ করা যাবে না। টকশোতে স্বাধীনভাবে কথা বলা যাবে না। বন্ধুভাবাপন্ন দেশের বিরুদ্ধে নিউজ করা যাবে না। বিরোধী দলের কোনো নিউজ প্রচার করা যাবে না। বিটিভির সব নিউজ প্রচার করতে হবে। এটা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ ছাড়া কিছু নয়। রক্ত দিয়ে হলেও এই নীতিমালা প্রতিহত করা হবে।’

সমাবেশ শেষে প্রেসক্লাবের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে পল্টন মোড় প্রদক্ষিণ করে প্রেস ক্লাবের সামেন এসে শেষ হয়। বিক্ষোভ মিছিলে অনুমোদিত নীতিমালা পোড়ানো হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কবি আব্দুল হাই শিকদার, ক্রাইম রিপোর্টাস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ আকন্দ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ