• শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্ন |

তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত

Tistaসিসিনিউজ: উজান থেকে ধেঁয়ে আসা পাহাড়ী ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বুধবার ভোর ৬টায় থেকে নদীর ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে ব্যারাজের সবকটি (৪৪টি) গেট খুলে রেখেছে পানি উন্নয়ন বোড।  এদিকে নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় তিস্তা নদীর সংলগ্ন চর গ্রাম গুলো প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার ৫ শতাধিক পরিবারের বাড়িঘর হাটু থেকে কোমর সমান পানিতে তলিয়ে গেছে।
ডিমলা উপজেলা খাঁলিশা চাঁপানী ইউনিয়নের  ইউপি সদস্য রমজান আলী তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় পশ্চিমবাইশপুকুর ,ছোটখাতা, বানপাড়া গ্রামে  প্লাবিত করে  কোমড় সমান পানিতে তলিয়ে দিয়েছে। এ ছাড়া গ্রামের ৪টি মাটির রাস্তা ভেঙ্গে গেছে। অপর দিকে টেপাখড়িবাড়ি-খগাখড়িবাড়ি-গয়াবাড়ি-ঝুনাগাছচাঁপানী-ডাউয়াবাড়ি-শৌলমারী-কৈমারী এলাকার চরগ্রাম গুলোর ৫ শতাধিক পরিবারের ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়েছে। তবে সকাল ১০টার পর থেকে নদীর পানি কমতে থাকায় প্লাবিত গ্রাম গুলোর পানিও নামতে শুরু করেছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগণ।
পানি উন্নয়ন বোডের তিস্তার ডালিয়া বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্র জানায়  তিস্তা ব্যারাজ ডালিয়া পয়েন্টে বুধবার ভোর ৬টা থেকে তিস্তানদীর পানি বিপদসীমার (৫২দশমিক ৪০ মিটার) ৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। তবে  বিকাল ৩ টার পর তা টায় বিপদসীমা (৫২ দশমিক ৪০ মিটার) দিয়ে প্রবাহিত হয়।
সর্বশেষ খবর জানতে বিকাল সাড়ে চারটায় মুঠোফোনে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবর রহমান জানান, বর্তমানে পানি বিপদ সীর নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে বুধবার ভোর ৬টা থেকে তিস্তানদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার (৫২দশমিক ৪০ মিটার) ৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। এবং সকাল নটা থেকে পানি  কমতে থাকে বিকাল ৩টার দিকে বিপদ সীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ব্যারাজের সব কটি গেট খুলে রাখা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ