• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন |

নীলফামারীতে তিস্তা নদীর সলিড স্পার বাঁধ বিধ্বস্ত

Nilphamari Pic (1) 06.08সিসিনিউজ: নীলফামারীর জলঢাকায় তিস্তার নদীর ভাঙ্গনে ৯৯ মিটার দীর্ঘ সলিড (আরসিসি)স্পার-১ বাঁধ বিধ্বস্ত বিলিন হয়েছে। এই সলিড স্পার বাঁধটি বিলিন হওয়ার ফলে এখন মাটির অপর আরেকটি স্পার বাঁধে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এতে হুমকীর মুখে পড়েছে তিস্তার ডানতীরের প্রধান বাঁধ। মাটির স্পার বাধটি রক্ষার্থে এবং নদীর ডানতীরের প্রধান বাঁধ হুমিকর মুখ থেকে বাঁচাতে সেখানে  জরুরী ভিত্তিত্বে বাঁশের ও কাঠের পাইলিংয়ের কাজ করে বালুর বস্তা ফেলছে পানি উন্নয়ন বোড। এদিকে ওই ভাঙ্গন শুরু হওয়ায় জলঢাকা উপজেলার শৌলমারী ইউনিয়নের তালুক শৌলমারী এলাকার শতাধিক পরিবার আতংকের মধ্যে পড়েছে।
বুধবার ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, তালুক শৌলমারী এলাকায় নদী শাসনের দীর্ঘ ৯৯ মিটার সলিড স্পার বাঁধ  ভেঙ্গে মুল বাঁধের কাছাকাছি চলে আসায় জরুরী ভিত্তিতে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া ডিভিশনের পক্ষ থেকে মূল বাঁধ রক্ষা করতে বিধ্বস্ত স্পার বাঁধে  বাঁশের ও কাঠের পাইলিং করে ও বালির বস্তা ফেলা হলেও  তিস্তার ভাঙ্গনরোধ করা কঠিন হয়ে পড়ছে। এলাকাবাসীর জানায়  গত তিন দিন ধরে বাঁশের পাইলিং করা হলেও তা টিকছেনা। নদীর সেখানে সরাসরি আঘাত হানছে।
ওই এলাকার মোজাম্মেল হক  ও মারুফ হোসেন জানান, ‘এক সপ্তাহের ব্যবধানে তিস্তা নদীর পানির স্রোতে আরসিসির সলিড স্পার বাঁধটি বিধ্বস্ত হয়ে সম্পূর্ন বিলিন হয়েছে। নদীর পানি যেভাবে  আঘাত হানছে তাতে করে যে কোন সময় শৌলমারী, কৈমারী গ্রামের  কয়েক হাজার পরিবারের বসত ভিটা ফসলি জমি প্লাবিত হতে পারে।
শৌলমারী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ জানান যে ভাবে তিস্তা নদীর  ভাঙ্গন শুরু হয়েছে তা ভয়াবহ আকার ধারন করছে। ভাঙ্গনরোধ করা না গেলে ইউনিয়নরে বেশ কিছু গ্রামের ব্যাপক ক্ষতি হবে।
পানি উন্নয়ন বোডের ডালিয়া  ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী (পওর) মাহবুবুর রহমান বলেন, জরুরী ভিত্তিতে কাজ করে ভাঙ্গন রোধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি জানান তিস্তার ভাঙ্গন ওই এলাকার ডানতীর বাধের ৩শত মিটারের কাছে এসে ঠেকেছে। ভাঙ্গনের কবল থেকে প্রধান বাধটি রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ