• শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৪ পূর্বাহ্ন |

বিএনপির হাঙ্গামা ঠেকাবে আওয়ামী লীগ

Awamili Flagসিসিনিউজ: বিএনপির প্রধান খালেদা জিয়ার আন্দোলনের ডাকের প্রেক্ষিতে জয়পুরহাট জেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।

এক পক্ষ প্রস্তুতি নিচ্ছে আন্দোলন সফল করতে। আর এক পক্ষের প্রস্তুতি আন্দোলন ঠেকানোর।

বিএনপির নেতাকর্মীরা আন্দোলনের নামে কোথাও হাঙ্গামা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের চেষ্টা করলে তা ঠেকাতে মাঠে থাকবে আওয়ামী লীগ। এমন মনোভাবই জানা গেল আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথোপকথনে।

তবে সরকারি দলের স্থানীয় নেতাকর্মীদের এ হুংকারে পাত্তা দিচ্ছে না বিএনপি।

২০ দলীয় জোট প্রধান খালেদা জিয়ার নিদের্শ বাস্তবায়নে সম্ভব সবকিছুই করার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপির নেতারা। আন্দোলনের প্রস্তুতি হিসেবে তৃণমূলে কাজও শুরু করছেন তারা।

তবে জেলার সাধারণ মানুষ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করে জানা গেছে, এবারের আন্দোলনে জনগণের মধ্যে স্বতঃস্ফূর্ততা নেই। কেউই অশান্ত পরিবেশের পক্ষে নয়।

মোট কথা খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ জ্বালাও-পোড়াওয়ের বিরুদ্ধে। বড় দু’টি দলের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যার সমাধান চায় তারা।

জয়পুরহাট শহরের রেল স্টেশনের আম ব্যবসায়ী রহমত, ডাব ব্যবসায়ী রাসেল,কলা বিক্রেতা কাদেরের সঙ্গে কথা হয়। তাদের একটাই কথা, তারা অশান্তি চান না। খেটে খাওয়া মানুষগুলো নিরাপদে জীবিকা নির্বাহ করতে চায়। আন্দোলন আর ঠেকানোর উভয় ঘোষণাতেই সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত।

সামনের দিনগুলোতে ২০ দলীয় জোটের আন্দোলন নিয়ে কথা হয় জেলা বিএনপির সভাপতি মোজাহার আলী প্রধানের সঙ্গে। তিনি বলেন, বিএনপি জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে অহিংস আন্দোলন শুরু করবে। এতে বাধা দেয়া হলে সে বাধা চুরমার করে দেয়ার কথা জানালেন মোজাহার।
তিনি বলেন, এখন শুধু নেত্রীর নির্দেশের অপেক্ষা।

এদিকে আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা বা হাঙ্গামা সৃষ্টির চেষ্টা করা হলে কড়া জবাব দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম সোলায়মান।

এছাড়া ভিন্নমত পোষণ করেন জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক তিতাস মোস্তফা। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি জনগণ ও দেশের স্বার্থে কাজ করছে। বিএনপির আন্দোলনের সঙ্গে তাদের সর্ম্পক নেই। তবে জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রফিলন ঘটাতে সুষ্ঠু নিবার্চনের পক্ষে সমর্থন আছে তার।

এদিকে জেলা বিএনপি’র ত্যাগী নেতা দাবিদার ফয়সাল আলীম বলেন,৫ জানুয়ারির আন্দোলনের চেয়ে আগামী দিনের আন্দালন হবে আরো বড় ধরনের। কারণ এ আন্দোলনে বিএনপি তথা জোটের নেতা-কর্মীরা সবাই এবার মাঠে থাকবে মনে করেন তিনি।

জেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি রেজাউল কবির বলেন জোটগত যে কোন সিদ্ধান্ত পালন করতে জেলা জামায়াত প্রস্তুত রয়েছে।

উৎসঃ   বাংলানিউজ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ