• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৪:১৫ অপরাহ্ন |

উত্তরাঞ্চলে উন্নত জাতের কলা ॥ চাষিদের ভাগ্য পরিবর্তন

জামাল উদ্দিন: দিনাজপুরসহ উত্তরাঞ্চলে উৎপাদিত উন্নত জাতের সতেজ কলা আড়তে তুলে বিষাক্ত কেমিক্যাল স্প্রে করে ও জাগ দিয়ে পাকানো হচ্ছে। এক শ্রেণীর কলা ব্যবসায়ী  স্থানীয় হাট থেকে কলা তুলে কেমিক্যাল স্প্রে করে দ্রুত পাকিয়ে বাজারজাত করছে। আড়তে মাটির ঘর বানিয়ে কেরোসিন চুলা জ্বালিয়ে ধোঁয়া দিয়েও কলা পাকানো হচ্ছে। স্প্রে করা হচ্ছে বিষাক্ত কীটনাশক ওষুধ। ধোঁয়া দেয়ার আগে কলা হলুদ রং করতে স্প্রে করা হয় কেমিক্যাল। দিনাজপুর, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ ও জয়পুরহাট জেলার খোলা বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে বিষাক্ত কেমিক্যল স্প্রে করা কলা, দেখার কেউ নেই। এবার রমজান মাসেই উত্তরাঞ্চলের কলা উৎপাদন খ্যাত দিনাজপুর, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ ও জয়পুরহাট জেলায় প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকারও বেশী কলার বাণিজ্য করেছেন ব্যবসায়ীরা।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উত্তরাঞ্চলের জেলার সহ¯্রাধিক কলা চাষিরা শুধু মাত্র কলা চাষ করেই নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। কলার দাম ও পাচ্ছেন চাষিরা। চাষ হচ্ছে নানা জাতের উন্নত মানের কলা। চাষ হচ্ছে আধুনিক পদ্ধতিতে উচ্চ ফলনশীল জাতের কলা। টিস্যু কালচারের মাধ্যমে তৈরী চারা থেকে। স্বাদে ও গন্ধে এখানকার কলার সুনামও রয়েছে। উৎপাদিত উচ্চ ফলনশীল কলার মধ্যে সাগর, চিনিচম্পা , মেস সাগর, সুন্দরি (মালভগ) নামীয় কলার দেশ ও বিদেশের বাজারেও চাহিদা রয়েছে। সবচেয়ে বেশী চাহিদা টিস্যুকালচারের মাধ্যমে তৈরি চারা থেকে উৎপাদিত সাগর ও মেস সাগর কলার ।
দেশিয় বাজারে বাজারজাত করা হচ্ছে বিষাক্ত কেমিক্যাল ও ধোঁয়ায় পাকানো কলা। এক শ্রেণীর কলা ব্যবসায়ী হাট থেকে উন্নত মানের তরতাজা কলা কম দামে কিনে নিজের আড়তে তুলেই কেমিক্যাল দিয়ে পাকিয়ে দ্বিগুন দামে বিক্রি করছে। চার জেলার কৃষি সম্প্র সারণ থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, এসব জেলায় বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সাড়ে ৮ হাজার হেক্টরেরও বেশী বাগানে কলা চাষ হচ্ছে। কলা চাষিদের মধ্যে অধিকাংশই  ভূমিহীন কৃষক। পরিত্যাক্ত ও অকৃষি জমি লিজ নিয়ে ভূমিহীনরা কলা চাষ করছে। এসব জমি কলা চাষের উপযোগী করে কলা চাষ করে ভালো ফলন পাচ্ছেন। চারা রোপনের ৩/৪ মাসের মধ্যে গাছে কলার থোর আসে। এক একটি পির/ কাদি থেকে ৫ থেকে ৭টি কলার ছড়ি পাওয়া যায় । এসব কলা কেনার জন্য ঢাকা, চট্রগ্রাম ও ময়মনসিংহ থেকে পাইকাররা এসে গ্রামের ফড়িয়াদের সাথে নিয়ে গ্রামঞ্চলে ঘুরে কলা বাগান কিনে। অনেক চাষী কলার পির/কাদি কেটেই হাটে তুলে। দিনাজপুরের বিখ্যাত কলার হাট দশ মাইল, তেরমাইল গড়েয়া, বৃহত্তর রানীরবন্দর থেকে ২০ থেকে ২৫ ট্রাক কলা চলে যাচ্ছে ঢাকা, চট্রগ্রাম, ময়মনসিংহসহ উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা উপজেলায়। কলা ব্যবসায়ীরা জেলা উপজেলায় নিজেদের আড়ত বা গুদামে তুলেই তরতাজা কলায় কেমিক্যাল স্প্রে করে আগুনের ধোঁয়ায় পাকিয়ে বাজারজাত করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ