• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন |

ডাক্তারের ধর্ষণকাণ্ডে রোগি গর্ভবতী, মামলা

Dorsonনওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে সুনাম ক্লিনিকের পরিচালক ডা. রেজাউল ইসলামের বিরুদ্ধে রোগিকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। নওগাঁ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। এ ব্যাপারে এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় চলছে।

ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মাগুরাপাড়া গ্রামের অভিযোগকারী মেয়েকে তলপেটে প্রচণ্ড ব্যাথার চিকিৎসার জন্য গত ২৯ এপ্রিল আত্রাইয়ের সুনাম ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনেস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। রোগির অ্যাপেন্ডিসাইটিস হয়েছে বলে অপারেশন করার পরামর্শ দেন ক্লিনিকের পরিচালক ডা. রেজাউল ইসলাম।

অপারেশনের কয়েকদিন পর প্রিয়া নামের কর্তব্যরত নার্স অভিযোগকারী মেয়েটিকে ডাক্তারের নিজ কক্ষে নিয়ে যায়। নার্স বলে দেয়, ডাক্তার সাহেব তোমাকে পরীক্ষা করবে কোনো বাধা দেয়া বা লজ্জা করা চলবেনা।

এই বলে নার্স বাইরে গিয়ে দরজা বন্ধ করলে কথিত ওই লম্পট ডাক্তার মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়েটি বাধা দিলে বা কান্নাকাটি করলে ইনজেকশনের মাধ্যমে হত্যার ভয় দেখিয়ে পরপর আরও দুই দিন একই কায়দায় ধর্ষণ করে ক্লিনিক থেকে ছেড়ে দেয়। মেয়েটি এখন প্রায় চার মাসের গর্ভবতী।

এ ঘটনায় ওই মেয়েটি বাদি হয়ে ডাঃ রেজাউল ইসলাম এবং নার্স প্রিয়াকে আসামি করে গত ১৯ জুন নওগাঁ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য ডাঃ রেজাউল ইসলামের সাথে মুঠো ফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে মুঠো ফোনে পাওয়া যায়নি।

আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল লতিফ খান জানান, আদালত থেকে মামলার নির্দেশনা পেয়েছি। নির্দেশনা মোতাবেক মামলাটি বৃহস্পতিবার থানায় রেকর্ড করা হয়েছে।মামলাটি তদন্তের জন্য তদন্ত ওসি শাহিনুর রহমান শাহিনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ভিকটিমকে পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদিকে মামলা হওয়ার পর থেকে অভিযুক্ত ডা. রেজাউল ইসলাম ও ধর্ষণে সহায়তাকারী নার্স প্রিয়া গাঁ ঢাকা দিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ