• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১৯ অপরাহ্ন |

কলম্বোর প্রথম দিনে পাকদের দাপট

Mahela-e1408018359382খেলাধুলা ডেস্ক: কথা রাখার লক্ষণ দেখাচ্ছে পাকিস্তান। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে মাহেলা জয়বর্ধনের বিদায়ী টেস্টের প্রথম দিনটিতে দাপট দেখিয়েছে সফরকারীরা। যখন ‘দ্য আনপ্রেডিক্টেবল’রা এই টেস্ট শুরুর আগে হুঙ্কার ছুড়েছিল কিংবদন্তির প্রস্থান মঞ্চকে পণ্ড করতে আপ্রাণ লড়াই চালাবে তারা।

বৃহস্পতিবার ব্যাট হাতে স্ফূলিঙ্গ হতে পারেনি শ্রীলঙ্কান বিধ্বংসী জোড় কুমার সাঙ্গাকারা ও মাহেলা জয়বর্ধনের কেউই। তাই সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাবের (এসএসসি) প্রথম দিন শেষে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস বাহিনীর নামের পাশে জমা হয়েছে মাত্র ২৬১ রান। এজন্য ৮ উইকেট খরচ করতে হয়েছে লঙ্কানদের। আর ব্যাট করতে হয়েছে ৮৫ দশমিক ১ ওভার।

এদিন টস জিতে শুরু করে শ্রীলঙ্কা। এরপর ‘ব্যাটিং স্বর্গে’ প্রত্যাশিত ভাবে ব্যাটিং নেয় অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। স্বাগতিক দলের শুরুটাও হয় দুর্দান্ত। জুনাইদ খান আঘাত হানার আগে উপুল থারাঙ্গা ও কুশাল সিলভার উদ্বোধনী জুটিতেই আসে ৭৯ রান। শেষে অবশ্য ৯ রানের আক্ষেপ নিয়ে ফিরতে হয় সিলভাকে। ইনিংসের ৩৩তম ওভারের পঞ্চম বলে ৪১ রান করে সাজঘরে ফেরেন এই ওপেনার।

এরপর দ্বিতীয় উইকেট পার্টনারশিপে কুমার সাঙ্গাকারাকে নিয়ে আগানোর প্রত্যয় দেখান থারাঙ্গা। কিন্তু স্কোরবোর্ডে ৬৫ রান যোগ করেই বিচ্ছিন্ন হতে হয় এই জুটিকে। যখন সাঙ্গা ৪৫ বল মোকাবেলায় ২২ রান করে ওয়াহাব রিয়াজের শিকার হন। কিন্তু লঙ্কান উইকেটকিপারের প্রস্থানের পরও কলম্বোয় হর্ষধ্বণি ওঠে। কারণ ‘টু ডাউনে’ যে ব্যাটিংয়ে নামবেন জয়বর্ধনে। এই ম্যাচ খেলেই টেস্টে যার বিদায় ঘণ্টা বাজবে।

অথচ উচ্ছ্বাসের এই স্রোতটাকে খুব বেশিদূর বইতে দেননি সাঈদ অজমল। কিংবদন্তি জয়বর্ধনেকে ‘গার্ড অব অনার’ দিয়ে মাঠে প্রবেশ করিয়ে মাত্র চার রান করেই আউট করেন পাক স্পিনার। মাহেলাকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে বিদায় ঘণ্টা বাজান অবৈধ বোলিংয়ের সন্দেহে থাকা আজমল। সেটা ইনিংসের ৫৫তম ওভারের শেষ বলে। এর ১০ রান বাদে প্যাভিলিয়নমুখী হন সেঞ্চুরির সুভাস ছড়ানো থারাঙ্গাও। নার্ভাস নাইনটিজে শতক থেকে আট রান দূরে থাকতে ওয়াহাব রিয়াজের বলে আজহার আলির হাতে ক্যাচ দেন তিনি।

দিনের বাকি বিকালটাতে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ছাড়া লঙ্কার আর কেউ সেভাবে পাক বোলারদের সামনে প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। দ্রুত বিদায় নিয়েছেন লাহিরু থিরিমান্নে (২০), নিরোসন ডিকওলা (২৪) ও দিলরুয়ান পেরেরা (০)। আর দিনের একেবারে শেষ বলে আউট হয়েছেন ম্যাথুস (৩৯)। রিয়াজের শিকার হন তিনি। পাক বোলারদের মধ্যে জুনাইদ খান ২১ ওভারে ৬৯ রান দিয়ে চারটি উইকেট নেন। আর তিনটি উইকেট গেছে রিয়াজের দখলে। একটি উইকেট পেয়েছেন সাঈদ আজমল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ