• বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন |

গর্ভাবস্থায় বাদাম গ্রহণ গর্ভস্থ শিশুর অ্যাজমার কারন

10স্বাস্থ্য ডেস্ক: গর্ভাবস্থায় বাদাম এবং বাদাম জাতীয় খাবার প্রতিদিন গ্রহণ করলে তা ভবিষ্যতে গর্ভস্থ শিশুর অ্যাজমা বা হাঁপানির উদ্রেক করতে পারে। নেদারল্যান্ডসের গবেষকরা এক সরকারি গবেষণায় এ তথ্য পেয়ে রীতিমতো বিস্মিত হয়েছেন। তারা বলছেন, এর আগে আমরা গর্ভবতীকে মাঝে-মধ্যে বাদাম খাওয়া নিয়ে গবেষণা করে হাঁপানির সঙ্গে কোনো সম্পর্ক পাইনি। কিন্তু প্রতিদিন বাদাম খেয়েছেন এমন গর্ভবতীদের ভূমিষ্ঠ শিশুদের মধ্যে হাঁপানি লক্ষ্য করা যাচ্ছে যা অনেকটাই বাদামের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। তবে গর্ভাবস্থায় একেবারেই বাদাম খাওয়া যাবে না, এ কথাটি বলার সময় এখনো আসেনি। কিন্তু গর্ভাবস্থায় স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণের বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ, তাই কোনো কিছু অতিরিক্ত গ্রহণ করা ঠিক নয়।

ডাচ্ সরকারের অধীনে চার হাজার গর্ভবতীর ওপর পরিচালিত সাম্প্রতিক এক গবেষণায় তাদের প্রতিদিন খাবারের তালিকার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়। বিভিন্ন প্রশ্নের মাধ্যমে শাকসবজি, ফল, মাছ, ডিম, দুধ, দুগ্ধজাত খাবার, বাদাম ও বাদামজাত খাবার সম্পর্কে গর্ভকালীন শেষ কয়েক মাসের তথ্য প্রদান করে গর্ভবতীরা। একইসঙ্গে তাদের ভূমিষ্ঠ শিশুদের খাবারের বিষয়ে আট বছর বয়স পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহ করা হয়। একইসঙ্গে আট বছর বয়স পর্যন্ত যেসব শিশুকে প্রতিবছর হাঁপানিবিষয়ক পরীক্ষা করানো হয়। ফলাফলে দেখা গেছে যেসব মা গর্ভাবস্থায় নিয়মিত বাদাম ও বাদামজাত খাবার গ্রহণ করেছেন তাদের মধ্যে হাঁপানির প্রকোপ লক্ষ্য করা গেছে। গবেষণার এ ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে আমেরিকান জার্নাল ও রেসপিরেট রি অ্যান্ড ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিনে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ