• বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন |

ফারুকী হত্যা: বিএনপি চেয়ারপার্সনের নিন্দা ও শোক

Khaleda-Ziaঢাকা: সশস্ত্র দুস্কৃতকারিরা হাইকোর্ট মসজিদের খতিব, বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন ও চ্যানেল আই-তে কাফেলা অনুষ্ঠানের উপস্থাপক শাইখ কাজী নুরুল ইসলাম ফারুকীকে ঢাকার পূর্ব রাজাবাজারের নিজ বাসায় পৈশাচিকভাবে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা করেছে। এই মর্মান্তিক ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও শোক জানিয়ে নিম্নোক্ত বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

“বর্তমান অবৈধ সরকারের আমলে দেশের মানুষ আর নিরাপদ নয়। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি এবং ক্ষমতাসীনদের হিংসাত্মক কার্যকলাপের কারণে বৃদ্ধি পাওয়া অপহরণ আর লাশের মিছিলের ভয়াবহ বাস্তবতায় দেশের আপামর জনসাধারণ সবসময় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে দিন কাটাচ্ছে। গতরাতে দুস্কৃতকারিদের কর্তৃক দেশের বিশিষ্ট আলেম শাইখ কাজী নুরুল ইসলাম ফারুকীকে হত্যার মধ্য দিয়ে আরেকবার প্রমান হলো যে, এই দেশে খুনের রাজত্ব কায়েম হয়েছে। দেশবাসী এমন একটা নৈরাজ্যকর থমথমে পরিবেশে বসবাস করছে যেখানে পরিবার-পরিজন নিয়ে একজন দ্বীনি আলেমকেও দুস্কৃতকারিদের হাতে জীবন হারাতে হয়। অবৈধ সরকারের সৃষ্ট কুশাসনের করাল গ্রাস থেকে কেবল দেশের রাজনৈতিক নেতা-কর্মীই নয় দেশের সম্মানীত বিশিষ্টজনরাও রেহাই পাচ্ছেন না। সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা আছে বলেই গুম, খুন ও অপহরণকারীরা ঘটনা ঘটিয়ে অদৃশ্য হয়ে যাচ্ছে। মাওলানা শাইখ কাজী নুরুল ইসলাম ফারুকীকে নির্মমভাবে হত্যার মধ্য দিয়ে দেশের বিরাজমান খুনোখুনী ও রক্তারক্তির বিভৎস চিত্রটিই ফুটে উঠেছে। সারাদেশে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির লক্ষ্য নিয়েই সরকার ইচ্ছাকৃতভাবেই প্রশ্রয় দিচ্ছে সন্ত্রাসী গডফাদার ও দুস্কৃতকারিদের যাতে অরাজক ও ভীতিকর পরিস্থিতি বিদ্যমান রেখে অবৈধভাবে দখল করা ক্ষমতা টিকিয়ে রাখা যায়। কারণ অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে নৈরাজ্য ও দু:শাসনের বিকল্প নেই। এই অবৈধ ক্ষমতাসীনদের সাথে জনগণ নেই। তাই অনাচার ও অবৈধ কর্মকান্ডে সমাজবিরোধী সন্ত্রাসীরাই এখন তাদের সবচেয়ে বেশী ভরসার স্থল। আর এইজন্য আশকারা পেয়ে সন্ত্রাসীরা বেপরোয়া হওয়ার সাহস পাচ্ছে। এইভাবে হত্যালীলা চালিয়ে দেশব্যাপী রক্তপাত ঘটানোর জন্য সরকারকে একদিন চরম ভয়াবহ পরিনতি ভোগ করতে হবে।”

বিএনপি চেয়ারপার্সন অবিলম্বে শাইখ কাজী নুরুল ইসলাম ফারুকীকে হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানান। তিনি দুস্কৃতকারীদের হাতে নিহত কাজী নুরুল ইসলাম ফারুকীর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের সদস্যবর্গ ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সহমর্মিতা জ্ঞাপন করেন।

অপর এক বিবৃতিতে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতরাতে মাওলানা শাইখ কাজী নুরুল ্ইসলাম ফারুকী হত্যাকান্ডের ঘটনাকে চরম নির্মমতা আখ্যা দিয়ে বলেন, গোটা দেশটা এখন নরকের জনপদ। অবনতিশীল আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির কারণে দেশের মানুষের নিরাপত্তা ও বেঁচে থাকা হুমকির মুখে। বর্তমান স্বৈরশাসকদের শাসনামল বিশ্বের ইতিহাসে সাদা পোশাক পরা কালো শাসনের অধ্যায় বলে পরিচিত হবে। এই মূহুর্তে আওয়ামী নির্যাতন নিপীড়ণ ও দু:শাসনের কবল থেকে দেশকে উদ্ধার করতে না পারলে দেশের অস্তিত্বই বিলীন হয়ে যাবে। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতরাতে বর্বরোচিত কায়দায় নিহত মাওলানা শাইখ কাজী নুরুল ইসলাম ফারুকীকে হত্যাকারী দুস্কৃতকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানান। তিনি মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গ ও গুনগ্রাহীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ