• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৫৩ পূর্বাহ্ন |

বিরলে বাল্য বিয়ের আয়োজনে বর ও কনের পিতার সাজা

Adalotদিনাজপুর প্রতিনিধি: বিরলে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে দাখিল পরীক্ষার্থী এক ছাত্রী বাল্য বিয়ে হাত হতে রক্ষা পেয়েছে। আর বিয়ের আয়োজন করার অপরাধে বর ও কনের পিতাকে ৭ দিনের সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক বিরল উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন।
দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার রাণীপুকুর ইউপি’র রাঙ্গন গ্রামের আব্দুল লতিফের ১৯ বছর ১১ মাস ২৩ দিন বয়সী পুত্রের সাথে পার্শ্ববর্তী হালজায় গ্রামের আলমের ১৬ বছর ১০ মাস বয়সী কন্যা কাজিপাড়া দাখিল মাদ্রাসার দাখিল দশম ছাত্রী বিয়ের আয়োজন করে। খবর পেয়ে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রুনা পারভীন বিষয়টি ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবগত করেন। পরে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন পুলিশ প্রশাসনসহ বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় কনের বাড়ীতে বিয়ের অনুষ্ঠানে আসা বর ও তার আত্মীয়-স্বজন পুলিশ দেখে পালিয়ে যায়। এ সময় বর ও কনের পিতাকে না পেয়ে বরের ভাই, বন্ধু ও কনে এবং কনের মাকে প্রশাসন তুলে নিয়ে আসে। রাতে বর ও কনের পিতা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে নিজেদের সন্তান সাবালক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না মর্মে অঙ্গিকার করলে বরের ভাই, বন্ধু ও কনে এবং কনের মাকে ছেড়ে দিয়ে বরের পিতা আব্দুল লতিফ ও কনের পিতা আলমকে ৭ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন। বৃহস্পতিবার রাতেই তারে কারাগারে পাঠানো হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ