• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:১৪ পূর্বাহ্ন |

বিরলে প্রধান শিক্ষক পেটালো সহকারি শিক্ষককে ॥ থানায় অভিযোগ

Lancitoদিনাজপুর প্রতিনিধি: জেলার বিরলে রবিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পিটিয়েছে সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলামকে। এ ব্যাপারে মারধরের শিকার সহকারি শিক্ষক বিরল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। এ ঘটনার প্রাথমিক তদন্তে সহকারি শিক্ষককে পেটানোর সত্যতা স্বীকার করেছেন বিরল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার।
লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গত ০৪-০৯-২০১৪ তারিখে রবিপুর স্কুলে ক্লাশ চলাকালীন সময়ে অপর সহকারি শিক্ষক রশিদা খাতুনকে অহেতুক গালিগালাজ ও লাঞ্চিত করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাজমা খাতুন। এ ঘটনা দেখতে পেয়ে সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলাম শিশুদের সামনে অবাঞ্চিত আচরণ না করার অনুরোধ জানান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রধান শিক্ষক মোবাইলে বিষয়টি তার পরিবারের লোকদের  জানায়। খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রধান শিক্ষক নাজমার পিতা নাজমুল ইসলাম সরকার (৬৫), ফুফাতো ভাই মুন্না (২৫) ও ছেলে সুজন (৩০) স্কুলের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে মেইন গেটে তালা ঝুলিয়ে অফিস রুমে প্রবেশ করে সরকারি কাজে বাধাদানসহ সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলামকে শিশুদের সামনেই এলোপাথারি কিল ঘুষি ও লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে গুরুতর জখম করে। এক পর্যায়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক’র ছেলে সুজন (৩০) ক্ষিপ্ত হয়ে সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলামকে হত্যার উদ্দেশ্যে গলাটিপে শ্বাসরোধ করা চেষ্টা করে বলে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত সহকারি শিক্ষক রশিদা খাতুন, আকলিমা খাতুন মারধর ঠেকানোর চেষ্ঠা করলে তাদেরও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়। আহত শিক্ষক ও উপস্থিত শিক্ষার্থী-শিক্ষকদের চিৎকারে পথচারীরা স্কুলে প্রবেশ করলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের পিতা নাজমুল, ভাই মুন্না ও ছেলে সুজন সহকারি শিক্ষকদের বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে দ্রুত স্কুল ত্যাগ করে চলে যায়। খবর পেয়ে সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলামের স্বজনরা ঘটনাস্থলে পৌছে বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ জানিয়ে সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলাম বিরল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সোমবার সকালে বিরল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার প্রত্যুষ কুমার চট্টোপাধ্যায়ের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, অভিযোগ পেয়ে প্রাথমিকভাবে তদন্ত করে সহকারি শিক্ষক মোজাহারুল ইসলামকে মারধরের ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।
দিনাজপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. একরামুল হক জানান, বিষয়টির ব্যাপারে তিনি অবগত হয়ে ওইদিনই বিরল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট তদন্তের রিপোর্ট চেয়েছেন। সেই সাথে দোষীদের বিরুদ্ধে শিক্ষা নীতিমালানুযায়ী বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন বিরল শিক্ষা অফিসারকে।
এ ঘটনায় বিরল উপজেলার শিক্ষকরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, সহকারি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, বিরল উপজেলা চেয়ারম্যান, বিরল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিরল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট সুবিচার চেয়ে পৃথক পৃথক দরখাস্ত প্রেরণ করেছেন।

দিনাজপুরে রাজু ট্রেডার্সের মালিক ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে মামলা
দিনাজপুরে প্রতিবন্ধী সম্রাটকে মারধরের ঘটনায় রাজু ট্রেডার্সের মালিক ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং-১২, তারিখঃ ০৫-০৯-১৪।
এজাহার সুত্রে জানা গেছে, দিনাজপুর শহরের গনেশতলায় মোটরসাইকেল শোরুমের মালিক ও কর্মচারীরা সম্রাট (২৫) নামে এক প্রতিবন্ধীকে গত ০৩-০৯-১৪ তারিখে পিটিয়ে জখম করে। ঘটনাস্থল থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত প্রতিবন্ধী সম্রাট শহরের ঘাষিপাড়া মহল¬ার মহসিন আলী ইদুয়ার ছেলে।
এ ব্যাপারে সম্রাটের মা মোছা. হাজেরা বেগম (৪৫) বাদী হয়ে লিখিত এজাহারের দায়ের করলে দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় ১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩০৭/১১৪ ধারায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলতাফ হোসেন মামলা হিসেবে রুজু করেন। মামলায় পাহাড়পুরস্থ মৃত আলী হোসেন’র ছেলে মোঃ আজাদ হোসেন (৬০), রাজু ট্রেডার্সের মালিকের ছেলে মোঃ আবুল কালাম আজাদ রাজু (৩৫), রাজু টেডার্সের ম্যানেজার মোঃ ছুটি ও ঘাসিপাড়াস্থ মৃত নওশাদ আলীর ছেলে, দোকানের কর্মচারী মোঃ ইরফান আলীকে (৩০) আসামী করা হয়েছে।
মামলার বাদী হাজেরা বেগম জানান, মামলা করার পর থেকে উপরোক্ত ব্যক্তিরা অজ্ঞাত ব্যক্তিদের মাধ্যমে মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি প্রদান করছে, সেই সাথে জীবন নাশের হুমকিও প্রদান করছে। বর্তমানে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ