• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১২:১৪ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

জনতা ব্যাংকের অবক্ষয় হয়েছে: অর্থমন্ত্রী

index_50846ঢাকা : ‘গত পাঁচ বছরে জনতা ব্যাংকের অনেক অবক্ষয় হয়েছে’ বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আর এর দায়দায়িত্ব ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদকে নিতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল বারাকাতের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা যখন ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসি তখন এটি সরকারের সবচেয়ে ভালো ব্যাংক ছিল। বর্তমানে তাদের প্রায় সব সূচকই নিম্নমুখী।’

জনতা ব্যাংকের কার্যক্রম তদন্ত করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের কার্যক্রম নিয়ে কোনো তদন্ত করার প্রয়োজন বোধ করছি না।’

নৌকা বাইচের টাকা না দেওয়ার কারণে জনতা ব্যাংকের সিএসআর ফান্ড বন্ধ করা হয়েছে- এমন অভিযোগ করেছেন চেয়ারম্যান আবুল বারাকাত।

এর সত্যতা জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সংবাদ মাধ্যমে আমি এটা জেনেছি। এ নিয়ে কোনো ধরনের মন্তব্য করার কোনো ইচ্ছাই আমার নেই।’

ব্যাংকটির চেয়ারম্যান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তার মেয়াদ শেষ হয়েছে, তা আর বাড়ানো হবে না। সেজন্য তার দুঃখ থাকলেও থাকতে পারে। আমার মনে হয় আমরা গত সরকারের ৫ বছরে তাকে দেখেছি। দেশে আওয়ামী লীগের সমর্থক লোক বহু আছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই আছেন গুরুত্বপূর্ণ। তাদেরকেও আমাদের দেখাশুনা করতে হয়। একজন চেয়ারম্যান অনন্তকালের জন্য বোর্ডে থাকবেন তা মনে করার কারণ নেই।’

উল্লেখ্য, সোমবার রাজধানীর বাসাবোতে এক অনুষ্ঠানে জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. আবুল বারকাত অর্থমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘সুনামগঞ্জের হাওরে আয়োজিত নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতায় টাকা চেয়ে জনতা ব্যাংককে একটি চিঠি দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। ওই টাকা না দেওয়ায় জনতাসহ চারটি ব্যাংকের সিএসআর (সামাজিক দায়বদ্ধতা) কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। আর এর মাধ্যমে অর্থমন্ত্রী বোকামি করেছেন। তিনি নির্বুদ্ধিতার পরিচয় দিয়েছেন।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ