• শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০২:২৬ অপরাহ্ন |

শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল হবে

11দিনাজপুর: শিক্ষকরা যাতে সবরকম সুবিধা পেয়ে সমাজে মাথা উুঁচু করে দাঁড়াতে পারে সেজন্য সরকার একটি স্বতন্ত্র বেতন স্কেল চালুর চিন্তাভাবনা করছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

বৃহস্পতিবার সন্ধায় দিনাজপুর জিলা স্কুল প্রাঙনে উত্তরাঞ্চলের তিন জেলার মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের নিয়ে আয়োজিত এক শিক্ষক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত ও আধুনিক বাংলাদেশ গড়তে হলে নতুন প্রজন্মকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। আর নতুন প্রজন্মকে আধুনিক বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে গড়ে তুলতে হলে দেশে বিশ্বমানের শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করতে হবে। বিশ্বমানের এই শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করতেই জাতীয় শিক্ষানীতি প্রণয়ন করা হয়েছে।’

প্রণীত শিক্ষানীতির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বিশ্বমানের শিক্ষা দেয় সম্ভব দাবি করে নাহিদ বলেন, ‘প্রচলিত গতানুগতিক শিক্ষা ব্যবস্থায় নতুন প্রজন্মকে আধুনিক হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব নয়। এ জন্য জাতীয় শিক্ষানীতি অনুযায়ী আধুনিক, বিজ্ঞানসম্মত ও মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে বিশ্বমানের গড়ে তুলতে হবে। আর নতুন প্রজন্মকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করার দায়িত্বটি পালন করতে হবে শিক্ষকদেরই।’ এ জন্য তিনি শিক্ষকদের নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

শিক্ষাক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘২০১৫ সালের পহেলা জানুয়ারিতে দেশের ৪ কোটি ৪৪ লাখ শিক্ষার্থীর হাতে নতুন পাঠ্যবই তুলে দেয়া হবে।’

প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীর হাতে নতুন পাঠ্যবই তুলে দেয়ার কর্মসূচীকে এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সম্পদের সীমাবদ্ধতা সত্বেও সরকার দেশে শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।’

শিক্ষকদের বিভিন্ন সমস্যার কথা উল্লেখ করে নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, শিক্ষকদের নায্য দাবি আদায়ের ব্যাপারে সবসময় শিক্ষকদের পাশে ছিলাম, এখনও আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো। জাতীয় বেতনস্কেল পরিবর্তন করা হলে বেসরকারি শিক্ষকদেরও সেই বেতন স্কেলে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এছাড়াও শিক্ষকদের জন্য একটি স্বতন্ত্র বেতন স্কেল চালুর চিন্তাভাবনা রয়েছে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি শিক্ষিত জাতি হিসেবে গড়ে তোলার মাধ্যমে বাংলাদেশ যাতে বিশ্বের কাছে মাথা উচু করে দাঁড়াতে পারে সে লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।’ এ ক্ষেত্রে শিক্ষকদের সঠিকভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘আধুনিক যুগে দ্রুত উন্নয়নের হাতিয়ার হচ্ছে জ্ঞান ও প্রযুক্তি। এ জন্য জ্ঞান ও আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর একটি মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করার লক্ষ্যেই একটি যুগোপযোগী জাতীয় শিক্ষানীতি প্রণয়ন করা হয়েছে।’

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহমেদ হোসেন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ হানজালা, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. রফিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসার এনায়েত হোসেন। এতে দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ