• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১১:৫০ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

গুজরাটে হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা, বিএসএফ মোতায়েন

92803_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের গুজরাটের ভাদোদরায় নবরাত্রির অনুষ্ঠানে মুসলমানদের প্রবেশে বাধা দেওয়ার অভিযোগ নিয়ে ছড়িয়ে পড়া সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা অব্যাহত রয়েছে। দাঙ্গার জড়িত সন্দেহে গত কদিনে প্রায় দেড়শ জনকে আটক করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত প্রাণহানির কোনো খবর পাওয়া না গেলেও, দোকান, যানবাহন এবং বাড়িতে ভাঙচুরের অনেক ঘটনা ঘটেছে। দাঙ্গা সামলাতে পুলিশ অনেক জায়গায় পুলিশ গুলি ছুড়েছে।

শহর জুড়ে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে দাঙ্গা পুলিশের পাশাপাশি আধা-সামরিক বাহিনী বিএসএফ শহরে টহল দিচ্ছে।

চার মাস আগের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই ভাদোদরা থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাতে ভাদোদরায় হিন্দুদের নবরাত্রি উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মুসলিমদের প্রবেশে বাধা দেওয়ার ঘটনা কেন্দ্র করে দাঙ্গার সূত্রপাত হয়।

পশ্চিম ভারতে নবরাত্রির সময় গারভা নাচ বহু পুরনো ঐতিহ্য। এই নাচ হিন্দুদের ধর্মীয় অনুষ্ঠান হলেও, অন্যান্য ধর্মীয় সম্প্রদায়ও তাতে অংশ নেয়।

লাভ জিহাদের প্রচারণা

কিন্তু এবার নবরাত্রির আগ থেকেই বিশ্ব হিন্দু পরিষদ সহ (ভিএইচপি)কট্টর কিছু হিন্দু সংগঠন দাবি তোলে গারভা নাচের অনুষ্ঠানে মুসলমানদের নিষিদ্ধ করার পক্ষে প্রচারণা শুরু করে। তাদের যুক্তি মুসলিম যুবকদের এই সুযোগে হিন্দু মেয়েদের সাথে সম্পর্ক করার চেষ্টা করে।

ভিএইচপি নেতা কনক সিং খোলাখুলি বলেন, “আমাদের হিন্দু মেয়েদের প্রলুব্ধ করে ধর্মান্তরিত করার ষড়যন্ত্র এঁটেছে মুসলিমরা – তাই তাদের ঠেকাতেই গারভাতে পরিচয়পত্র যাচাই করা আর সিসিটিভি বসানোর দাবি জানিয়েছি আমরা।”

পাশের রাজ্য মধ্যপ্রদেশে বিজেপির একজন প্রভাবশালি নেত্রী উষা ঠাকুর কট্টর হিন্দুদের এই দাবিকে সমর্থন করলে পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হয়ে পড়ে।

রাজ্য বিজেপি-র এই সহ-সভাপতি নির্দেশ দেন, পরিচয়পত্র দেখে শুধু হিন্দু যুবকদেরই যেন গারভায় ঢুকতে দেওয়া হয়।

মুসলিমদের প্রতিক্রিয়া

গুজরাটে বহু মুসলিম গারভা নাচের প্রশিক্ষণও দেন, অনুষ্ঠানে যারা সাউন্ড সিস্টেম সরবরাহ করেন তাদেরও অনেকেই মুসলিম।

এমন একজন ভাদোদরার নাজির সাউন্ডসের মজিদ মোহাম্মদ যেমন ভাবতেই পারেন না বাবার আমল থেকে পঁয়ত্রিশ বছর ধরে তারা যে গারভায় যাচ্ছেন সেখানে তাদের বাধা দেওয়া হবে।

শহরের মুসলিম তরুণী সাকিনা মোটরওলার এতদিন ধারণা ছিল গারভা হিন্দু-মুসলিম সবারই অনুষ্ঠান।

তার কথায়, তরুণ-তরুণীরা সবাই গারভা বলতে পাগল, এখানে ধর্মের কথাটাই অবান্তর।

বিবিসি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ