• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :

তারদেল্লির জোড়া গোলে ২-০ তে জিতলো ব্রাজিল

sports_54180খেলাধুলা ডেস্ক : আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দী আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে ব্রাজিল। ব্রাজিলের পক্ষে দুটি গোলই করেছেন দিয়েগো তারদেল্লি।

চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার প্রীতি ম্যাচটি নিয়ে উম্মাদনার কমতি ছিলনা ফুটবলবিশ্বে। উম্মাদনার প্রধান কারণ ছিলো মেসি-নেইমারকে মুখোমুখী খেলতে দেখা। কিন্তু যাদের নিয়ে এতো উম্মাদনা সেই মেসি-নেইমার ম্যাচে আলাদা করে উজ্জ্বলতা ছড়াতে পারেনি। বরং দুইজনই সহজ কিছু সুযোগ নষ্ট করেছেন। ম্যাচের ৪০ মিনিটে তো মেসি পেনাল্টিই মিস করলেন।

ম্যাচের শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের উপর চড়াও হয় আর্জেন্টিনা। প্রথম দিকে আর্জেন্টিনার আক্রমণ রুখতেই ব্যস্ত ছিলো ব্রাজিলিয়ানরা। কিন্তু সময় বাড়ার সাথে সাথে পাল্টাতে থাকে ম্যাচের দৃশ্য। ম্যাচের নিয়ন্ত্রন নিতে খুব বেশি সময় নেয়নি কার্লোস দুঙ্গার শিষ্যরা। ফলে দুই অর্ধে দুটি গোল আদায় করে নিয়ে শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের প্রথমদিকে দারুণ কিছু সুযোগ সৃষ্টি করে আর্জেন্টিনা। কিন্তু কাঙ্খিত গোল তুলে নিতে ব্যর্থ হয় মেসির দল। ম্যাচ শুরুর পরপরই দুটি ফ্রি-কিক পেলেও গোল করতে পারেনি মেসি। ম্যাচের ১৮ মিনিটে ডি মারিয়া ব্রাজিলের গোলমুখে জোড়ালো শট নিলেও তা গোলবারের উপর দিয়ে চলে যায়। ২১ মিনিটে সার্জিও আগুয়েরোর শটও বারের উপর দিয়ে চলে গেলে আবারো গোল বঞ্চিত হয় আর্জেন্টিনা।

এরপর ম্যাচের ৩১ মিনিটে দারুণ এক সুযোগ নষ্ট করেন ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার। একক প্রচেষ্টায় ৪ জন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোলরক্ষককে একা পেয়েও শেষ পর্যন্ত গোল করতে পারেননি তিনি।

এর কিছুক্ষন পর আবারো মাঝমাঠের নিচ থেকে বল নিয়ে একাধিক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে হঠাৎ আর্জেন্টিনার ডি-বক্সে ঢুকলেও গোলমুখে শট নেওয়ার আগেই বল হারান নেইমার।

এরপর ম্যাচের ৪০ মিনিটে সবচেয়ে বড় বিস্ময়টি উপহার দেন লিওনেল মেসি। ডি মারিয়াকে ডি-বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় আর্জেন্টিনা। কিন্তু পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন বার্সেলোনার গোলমেশিন লিওনেল মেসি।

মেসির বাঁ পায়ে নেয়া শটটি দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন ব্রাজিল গোলরক্ষক জেফারসন। ফলে ১-০ তে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনা।

বিরতির পর আক্রমনের ধার বাড়ায় ব্রাজিল। ৫৬ মিনিটে মিডফিল্ডার উইলিয়ানের জোড়ালো শট বারের উপর দিয়ে চলে যায়। এর এক মিনিট পরে অস্কারের নেওয়া ফ্রি-কিকে ডেভিড লুইজ অল্পের জন্য পা লাগাতে ব্যর্থ হওয়ায় আবারো গোল বঞ্চিত হয় ব্রাজিল।

৫৯ মিনিটে নেইমারকে কড়া ট্যাকেল করলে ডি-বক্সের ঠিক বাহিরেই ফ্রি-কিক পায় ব্রাজিল। অস্কারের নেওয়া ফ্রি-কিকটি দারুণ ভাবে ঠেকিয়ে দেন আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক রোমারিও।

তবে ম্যাচের ৬৪ মিনিটে ব্রাজিলকে এগিয়ে যাওয়া থেকে রুখতে পারেননি রোমারিও। তারদেল্লির দ্বিতীয় গোলে ম্যাচে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় ব্রাজিল।

অস্কারের নেওয়া কর্নার কিকে ডেভিড লুইস হেড করলে বল পেয়ে যান তারদেল্লি। এরপর তিনিও হেডে নিজের ও দলের দ্বিতয়ি গোলটি আদায় করে নেন।

এরপর আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি আর্জেন্টিনা। ৬৭ মিনিটে ডি-বক্সের ঠিক বাহির থেকে ফ্রি-কিক নিলেও গোল করতে পারেননি মেসি।

তবে ম্যাচের ৮০ মিনিটে ব্রাজিলকে এগিয়ে নেওয়ার সুযোগ পেয়েও তা নষ্ট করেন নেইমার। প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে দারুণ পজিশনে বল পেলেও জালে জড়াতে পারেননি ব্রাজিল অধিনায়ক। ফলে শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের শেষের দিকে ব্রাজিলের দুই তারকা কাকা ও রবিনহোকে মাঠে নামান কোচ দুঙ্গা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ