• বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১১:২৫ অপরাহ্ন |

মেসি-নেইমার মহারণের অপেক্ষায় ফুটবলবিশ্ব

image_101530_0খেলাধুলা ডেস্ক: ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি মানেই বিশ্বফুটবলের মহারণ৷আর ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মানেই মেসি-নেইমার দ্বৈরথ৷ হোক না সেটা প্রীতি ম্যাচ৷ গোটা ফুটবলবিশ্ব এই ম্যাচের অপেক্ষাতেই তো থাকে৷সারা পৃথিবীর মতো বেইজিংও আক্রান্ত এই ফুটবলজ্বরে৷
শনিবার বেইজিংয়ের বার্ডস নেস্ট নামে পরিচিত অলিম্পিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা ৫ মিনিটে লাতিন আমেরিকার দুই পরাশক্তির ‘সুপারক্লাসিকো’ শুরু হবে।
বিশ্বকাপের পর গত মাসে ডুসেলডর্ফের প্রীতি ম্যাচে জার্মানিকে ৪-২ উড়িয়ে দিয়ে ফুরফুরে মেজাজেই রয়েছে টাটা মার্টিনোর আর্জেন্টিনা। তাই ব্রাজিলের বিপক্ষেও সেই একই কৌশল ধরে রাখতে চান আর্জেন্টিনার কোচ।
টাটা বলেন, “জার্মানির সঙ্গে যেভাবে খেলেছি সেভাবেই এ ম্যাচে খেলার চেষ্টা করবো। জয়ের লক্ষ্য নিয়েই আমরা মাঠে নামবো।”
অন্যদিকে বিশ্বকাপ বিপর্যরয়ের পর কলম্বিয়া ও ইকুয়েডর দুই দলকেই ১-০ গোলে হারিয়ে ছন্দে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছে দুঙ্গার ব্রাজিলও। অন্যদিকে রিকার্ডো কাকা দীর্ঘদিন পর ব্রাজিল দলে ফেরায় দলের শক্তিমত্তা বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করেন দুঙ্গা।
এদিকে মেসির সঙ্গে খেলার জন্য উন্মুখ হয়ে রয়েছেন মেসির বার্সা সতীর্থ নেইমার।  এলএম টেন’র বিপক্ষে খেলতে পারাটা বিরাট সম্মানের বলে জানিয়েছেন ব্রাজিলের এই ‘সেনসেশনাল বয়’। তবে মেসির বিপক্ষে খেলা খুব বেশি সুখকর হবে না বলেও জানান তিনি।
নেইমার বলেন, “মেসির বিপক্ষে খেলা খুব বেশি সুখকর হবে না।কারণ, আমরা দু’জনই চাইবো কারো জন্য দিনটা ভালো না কাটুক এবং কেউই চাইবো না কাউকে বল স্পর্শ করার সুযোগ দিতে।”
এদিকে জার্মানির বিপক্ষে গত প্রীতি ম্যাচে ইনজুরির জন্য খেলতে না পারা মেসি বেইজিংয়ে নেইমারের বিপক্ষে মাঠে নামার জন্য প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন। ফলে জমজমাট লড়াইয়ের আশা করা যাচ্ছে।
ইতিহাস ঘেঁটে দেখা যায়, ফুটবলের দুই প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল এ পর্যফন্ত ৯৫ বার মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে জয়ের পাল্লাটা আর্জেন্টিনার দিকে একটু ভারি। আর্জেন্টিনার ৩৬ জয়ের বিপরীতে ব্রাজিল জয় পেয়েছে ৩৫টি ম্যাচে। অপর ২৪টি ম্যাচ ড্র হয়।
তবে বিশ্বকাপে চারবারের সাক্ষাতে আর্জন্টিনার ১ জয়ের বিপরীতে ব্রাজিল জয় পেয়েছে ২ ম্যাচ। অপর ম্যাচটি ড্র হয়।
গোলসংখ্যায়ও ব্রাজিলের চেয়ে আর্জেন্টিনা কিছুটা এগিয়ে রয়েছে। ব্রাজিলের ১৪৫ গোলের বিপরীতে আর্জেন্টিনা করেছে ১৫১টি গোল।
আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়টি এসেছে ১৯৪৫ সালে। রিও ডি জেনেরোতে সেলেকাওরা আর্জেন্টিনাকে ৬-২ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করে।
অন্যদিকে ব্রাজিলের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার বড় জয়টি এসেছে ১৯৪০ সালে। বুয়েন্স আইরেসে আর্জেন্টিনা ৬-১ গোলে সেলেকাওদের পরাজিত করে।
সর্বশেষ পাঁচবারের সাক্ষাতে দুই দলই সমান দুটি করে জয় পেয়েছে। একটি ম্যাচ ড্র হয়েছে। ২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারানো ব্রাজিল পরের বছরই (২০১২ সালের ৯ জুন) মেসির আর্জেন্টিনার কাছে ৪-৩ গোলে পরাজিত হয়। এরপর ১৯ সেপ্টেম্বর মেসির আর্জেন্টিনাকে ২-১ গোলে হারায় ব্রাজিল। দুইমাস পর ফিরতি সাক্ষাতে সেলেকাওদের একই ব্যবধানে পরাজিত করে আর্জেন্টিনা।  -গোল ডটকম ও ডেইলি মেইল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ