• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১২:০৭ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে তথ্যসংগ্রহকারী ও সুপারভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট বিনা খরচে আইনের সেবা পেতে সেমিনার শিক্ষক লাঞ্চনা ও হেনস্তার বিরুদ্ধে সৈয়দপুরে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিবাদ সমাবেশ সৈয়দপুরে শহীদ আমিনুল হকের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে বিনামূ‌ল্যে বীজ ও সার বিতরণ

সমকামী আলজেরিয়ানের ভয়ংকর কীর্তি

94200_1সিসি ডেস্ক: রাজধানীর উত্তরায় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ছাত্র জুবায়ের আহমেদ (১৭) হত্যাকাণ্ডের পেছনে গ্রেপ্তার হওয়া বিদেশি এক নাগরিকের বিকৃত যৌনাচারের বিষয় রয়েছে বলে গতকাল রবিবার সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। পুলিশ জানায়, জুবায়েরের সঙ্গে যৌনকর্ম করতে চেয়ে ব্যর্থ হয়ে তাকে হত্যা করে প্রায় দশ বছর ধরে অবৈধভাবে বাংলাদেশে বসবাস করা আলজেরিয়ান নাগরিক সমকামী আবু ওবায়েদ কাদের (৪৬)। মূলত ফুটবল কোচ পরিচয়ে উত্তরায় শিশু-কিশোরদের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তুলতেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপকমিশনার (উত্তর) শেখ নাজমুল আলম জানান, গত ৪ অক্টোবর সংঘটিত এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার করা আবু ওবায়েদ কাদের ও স্কুলছাত্র ইসমাইলকে জিজ্ঞাসাবাদে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া গেছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার ইকবাল হোসেন বলেন, আলজেরিয়ান নাগরিক আবু ওবায়েদ কাদের খুব বাজে স্বভাবের লোক। তিনি প্রচুর মিথ্যা কথা বলেন। তিনি প্রায় ১০ বছর ধরে বাংলাদেশে অবৈধভাবে বসবাস করে আসছেন। তাঁর কোনো পাসপোর্ট বা ভিসার সন্ধান মেলেনি। বাংলাদেশে আলজেরিয়ার কোনো দূতাবাস না থাকায় তাঁর সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। তাঁর আচরণ খুবই রহস্যজনক।

গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদে কাদের জানিয়েছেন, তিনি অবিবাহিত। ১০ বছর আগে লেখাপড়ার জন্য বাংলাদেশে এসে আর দেশে ফিরে যায়নি। আলজেরিয়ায় তাঁর দুই ভাই ও এক বোন আছে। তাঁরাও অবিবাহিত। আলজেরিয়ায় থাকা অবস্থায়ই তাঁর সমকামিতার অভ্যাস ছিল। সেখানে অর্ধশতাধিক ‘অনৈতিক’ কর্মকাণ্ডের পর পালিয়ে বাংলাদেশে আসেন। এরপর উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতে শুরু করেন। ভাষার কারণে সমস্যা হওয়ায় এক বছরের মধ্যেই ইংরেজি ও আরবির পাশাপাশি বাংলাভাষা শিখে নেন। ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের কিশোর শিক্ষার্থীরা ছিল তাঁর প্রধান টার্গেট। মূলত গৃহশিক্ষক হিসেবেই কাদের দ্রুত পরিচিতি পান। ফুটবল ও সাঁতার প্রশিক্ষক হিসেবেও কাদের কাজ শুরু করেছিলেন। তিনি প্রতিদিন বিকেলে ছোট ছোট ছেলেদের সঙ্গে ফুটবল খেলতেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ৫ অক্টোবর উত্তরা ৪ নম্বর সেক্টরের পার্কের পুকুরে জুবায়েরের লাশ পাওয়া যায়। ওই দিনই তার মা দিলারা বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। গত ৬ অক্টোবর আবু ওবায়েদ কাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে গত শুক্রবার উত্তরা থেকে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের আরেক ছাত্র ইসমাইলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ইসমাইলের উদ্ধৃতি দিয়ে গোয়েন্দা কর্মকর্তা নাজমুল বলেন, গত ৪ অক্টোবর বিকেলে উত্তরার ৪ নম্বর সেক্টরের একটি মাঠে খেলা শেষে জুবায়ের, কাদের ও ইসমাইল একসঙ্গে পুকুর পারে যায়। জুবায়ের পুকুরে গোসল করতে নামলে কাদেরও নেমে তার সঙ্গে যৌনকর্ম করতে চান। এতে জুবায়ের বাধা দিলে দুজনের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে কাদের জুবায়েরকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করেন। ঘটনাটি চেপে যেতে প্রত্যক্ষদর্শী ইসমাইলকে কাদের হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়েছিলেন বলে জানান ওই গোয়েন্দা কর্মকর্তা।

উৎসঃ   কালের কণ্ঠ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ