• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৬:২৫ অপরাহ্ন |

ঢাকায় শচীন টেন্ডুলকার

Socinঢাকা: এর আগেও অনেকবার ঢাকার আতিথ্য গ্রহণ করেছেন তিনি। এ শহরেও তার ক্রিকেটীয় কীর্তির গরিমা সুরভি ছড়িয়েছে। নিজের অবিস্মরণীয় শততম শতক পেয়েছেন তিনি এই ঐতিহাসিক নগরীতে। ২০১২ এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে।
আজ আবারো ঢাকার অতিথি হলেন শচীন টেন্ডুলকার। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় তিনি শাহজালাল বিমান বন্দরে নামেন তিনি। তবে এবারের আসা অন্য কারণে। যদিও খেলা থেকে অবসর নেয়া শচীনের এই ঝটিকা সফরে ক্রিকেটের যোগসূত্র রয়েছে। বিমানবন্দর ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি এএসপি শাহানাজ বেগম শচীনের ঢাকায় আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
ভারতের গৌহাটি থেকে মুম্বাই হয়ে একটি চার্টার্ড বিমানে করে শচীন বেলা ১১ টায় হযরত শাহজালাল রহ. আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। সেখান থেকে হেলিকপ্টারে করে রুপগঞ্জ বালুর মাঠে নামেন । আজ রাতেই ফিরে যাবেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০০ সেঞ্চুরি করা একমাত্র ক্রিকেটার।
গাজী ট্যাংক ক্লাব কেনার পর থেকেই লুৎফর রহমান বাদলের স্বপ্ন ছিল প্রিয় বন্ধু শচীনকে দিয়েই তার ক্লাবের উদ্বোধন করাবেন। আজ সেই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে তার।
ক্রিকেট সংগঠক লুৎফর রহমান বাদল বলেন, ‘আমার প্রথম স্বপ্ন পূরণ হয়েছে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ বিসিবির অনুমোদন পাওয়ায়। তবে আমার বড় স্বপ্ন হলো রূপগঞ্জে একটি ক্রিকেট একাডেমি গড়ে তোলা।
আমার বন্ধু শচীন টেন্ডুলকার যেহেতু লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের লোগো উন্মোচন করছেন তাই আশা করছি তিনিও এই একাডেমির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবেন। কিন্তু এ বিষয়ে শচীনের সঙ্গে আমার কোনো কথা হয়নি।’
ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের দল গাজী ট্যাংকের নাম পরিবর্তনের জন্য গত বছর বিসিবির কাছে আবেদন করেছিলেন লুৎফর রহমান। নতুন নাম হিসেবে বেছে নিয়েছেন ‘লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ।’
তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বোর্ড পরিচালকদের সবার সর্বসম্মতিক্রমে গাজী ট্যাংকের নাম পরিবর্তনের অনুমতি দিয়েছে বিসিবি। আসন্ন প্রিমিয়ার ক্রিকেটে তাই গাজী ট্যাংক নাম বদলে ‘লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ’ নামে অংশ নেবে।
বিকেল ৩টায় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে শচীন লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের লোগো উন্মোচন করবেন। অনুষ্ঠানে আইসিসির সভাপতি ও পরিকল্পনামন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল উপস্থিত থাকবেন। এর আগে ঢাকার অদূরে তারাবোর নোয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কিছু সময় কাটাবেন শচীন। এই সামাজিক কার্যক্রমের আয়োজন বন্ধু বাদলকে অনুরোধ করেছেন শচীন।
২০১২ সালে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছে সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষে শেষ ওয়ানডেতে হাফ সেঞ্চুরি করে ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসর নেন এই লিজেন্ড। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশই তার শেষ প্রতিপক্ষ।
এছাড়া টেস্ট ক্রিকেটে ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ইনিংস অপরাজিত ২৪৮ রানও বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিলেন তিনি। ২০০ টেস্টে ১৫,৯২১ এবং ৪৬৩ ওয়ানডে খেলে ১৮,৪২৬ রানের মালিক শচীনের আগমনকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য আরেকটি নতুন মাইলফলক বলে মনে করছেন অনেকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ