• সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০৯:২৬ অপরাহ্ন |

খালেদার অফিসের সামনে জলকামান

106167_1সিসি নিউজ: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ‘অবরুদ্ধ’ করে রাখার প্রতিবাদে গুলশানের বিভিন্ন জায়গায় জড়ো হচ্ছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। তারা সংগঠিত হয়ে বেশ কয়েকবার মিছিল নিয়ে কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। এ সময় কয়েক দফায় আটক হন প্রায় ১৬ জন নেতা-কর্মী; যাদের অধিকাংশই মহিলা। তবে গুলশানের বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছেন বিএনপির নেতা-কর্মীরা।

শেষ খবর পর্যন্ত দলীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে, বড় ধরনের অবস্থান নেওয়ার জন্য এরই মধ্যে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ের আশপাশ এলাকায় ব্যাপক সংখ্যক নেতা-কর্মী সংগঠিত হচ্ছে। যদিও কার্যালয়ের আশপাশ এলাকায় পুলিশ, র‌্যাব, দাঙ্গা পুলিশ, সাদা পোশাকের পুলিশসহ বিভিন্ন স্তরের গোয়েন্দা বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে। প্রহরা জোরদার করতে সন্ধ্যার পর আরো পুলিশ মোতায়েন করা হবে বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে। এরই মধ্যে এপিসি কার ও জলকামান নিয়ে আসা হয়েছে।

এদিকে, বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ের আশপাশ এলাকা ঘিরে পুলিশের পাশাপাশি ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ সরকারি দলের সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতা-কর্মীরাও গোপন অবস্থান নিয়েছেন বলেও খবর পাওয়া গেছে। এ অবস্থায়, স্থানীয় জনমনে সংঘাতের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

অন্যদিকে ‘অবরুদ্ধ’ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে তার রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবস্থান করছেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের একটি প্রতিনিধি দল। বেলা ২টার দিকে কার্যালয়ে প্রবেশ করেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. খন্দকার মাহবুব হোসেন, উপদেষ্টা জয়নুল আবেদিন ফারুক, প্রাক্তন মন্ত্রী অ্যাড. নিতাই রায় চৌধুরী, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. সানাউল্লাহ মিয়া ও ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার।

এর আগে বেলা দেড়টার দিকে ৮ সদস্যের একটি সাংবাদিক প্রতিনিধি দল কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। সাংবাদিক প্রতিনিধি দলে আছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি (একাংশ) শওকত মাহমুদ, সম্মিলিত পেশাজীবি পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রুহুল আমিন গাজী, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি (একাংশ) কবি আবদুল হাই শিকদার, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, ডিআরইউর প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, সরদার কামাল ফরিদ, শহিদ আহমেদ প্রমুখ।

এর আগে, দুপুর সোয়া একটার দিকে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে কার্যালয়ে প্রবেশ করেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর।

তবে বিকল্পধারার বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. বদরুদ্দোজা চৌধুরী ও মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে এসে পুলিশি বাধার মুখে ফিরে যান। এর পর আসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপ-উপাচার্য আ ফ ম ইউসুফ হায়দার। তিনিও কার্যালয়ে প্রবেশ করতে পারেন নি।

শনিবার রাত থেকে কার্যালয়ে ভেতরে অবস্থান করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ‘অবরুদ্ধ’ করে রাখার প্রতিবাদে দলের নেতাকর্মী ও দেশবাসীকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘আমি দল-জোটের নেতাকর্মী ছাড়াও দেশপ্রেমিক-গণতান্ত্রিক সকল দল-শক্তিকে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ