• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০২:৩৯ অপরাহ্ন |

ফুলবাড়ীর মহেশপুর আবাসন প্রকল্পের জমি উদ্ধারের দাবী

Press Conf. Picদিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার চোরাইট মধ্য মহেশপুর আশ্রয়ন প্রকল্পের জমি ভূমিদস্যুদের হাত থেকে উদ্ধারের দাবী জানিয়েছেন প্রকল্পের সদস্যরা। সোমবার নিমতলাস্থ দিনাজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবী জানানো হয়।
চোরাইট মধ্য মহেশপুর আশ্রয়ন প্রকল্পের সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাসানুর রহমান লিখিত বক্তব্যে বলেন, ২০০৫ সালে  উপজেলার জে.এল নং-১৩১ ও ১৩৪ এর ১৭৩ দাগ, ২২ দাগ ও ২৩ দাগের মোট ৮.৬১ একর জমি চৌরাইট মধ্য মহেশপুর আশ্রয়ন প্রকল্পের নামে বরাদ্দ দেয়া হয় এবং ওই বছরেই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। এর মধ্যে ৪.১৫ একর জমির মধ্যে এলাকার আকবর আলী নামে এক ব্যক্তি কিছু সংখ্যক প্রভাবশালী লোকদের নিয়ে ৪০ শতক জমি তার দখলে রাখে এবং নুর আমিনের দখলে নেয় আরো ৩০ শতক জমি।
সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়, প্রকল্পের সহ-সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ প্রকল্পের সদস্যরা ওই জমি উদ্ধারের জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করেন। কিন্তু আকবর আলী, নুর আমিন তাদের সহযোগিরা বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে প্রকল্পের সদস্যদের নামে হুমকি প্রদান করে এবং তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়ার পরিকল্পনা করে। তাদের সাথে যোগ দেয় ওই প্রকল্পের সদস্য সাইদুল ইসলাম। তিনি আকবর আলী, বাবুল, জুয়েলসহ প্রভাবশালী লোকদের নিয়ে উক্ত ৪.১৫ একর জমি দখল করে রাখে এবং আশ্রয়ন প্রকল্পের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন। তার অংশ হিসেবে ভূমিদস্যুদের একজন শফিকুল ইসলাম আশ্রয়ন প্রকল্পের সদস্য মোঃ মনসুর আলীর বিরুদ্ধে থানায় একটি মিথ্যা অভিযোগও দায়ের করেন।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, উক্ত ৪.১৫ একর জমির সম্পূর্ণটাই খাস খতিয়ানভুক্ত এবং শতভাগ নিষ্কণ্ঠক। আশ্রয়ন প্রকল্পের নামে ভুমি অধিগ্রহণের আগে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারী কমিশনার (ভুমি) প্রকল্পের পক্ষে যে রিপোর্টও প্রদান করেন। কিন্তু তার পরেও উল্লেখিত ভুমিদস্যুরা কোন শক্তির বদৌলতে উক্ত জমি জবরদখল করে রেখেছে তা সত্যিই এক অবিশ্বাস্য ব্যাপার। সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় ৪নং বেদদিঘি ইউনিয়নের উপ-সহকারী ভুমি কর্মকর্তা (তহশিলদার) ভুমিদস্যুদের পক্ষে প্রকাশ্যে কাজ করে চলেছেন বলে অভিযোগ করেছেন। এছাড়া আবাসন প্রকল্পে বসবাসরত মোঃ সাইদুল ইসলাম ও মোঃ জুয়েল আবাসন প্রকল্পের বিপক্ষে কাজ করছেন বলেও অভিযোগ আনা হয় সংবাদ সম্মেলনে।
ভূমিদস্যুরা বিভিন্নভাবে প্রকল্পের সাধারণ সদস্যদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন। তারা বিভিন্ন অসামাজিক কাজে লিপ্ত। এ অবস্থায় চৌরাইট মধ্য মহেশপুর আবাসন প্রকল্পে জমি দখলে রাখতে ও আবাসন প্রকল্পের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে গত ‘১৪-১২-২০১৪ তারিখে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর আবাসন প্রকল্প সমবায় সমিতির পক্ষ হতে একটি দরখাস্ত করা হয়। নির্বাহী কর্মকর্তা ওই দিনই এ ব্যাপারে তদন্ত প্রতিবেদন প্রদান করতে উপ সহকারী ভুমি কর্মকর্তাকে (তহশিলদার) নির্দেশ দেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় পার হূেয় গেলেও আজ পর্যন্ত তদন্ত প্রতিবেদন নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রদান করা হয়নি। সংবাদ সম্মেলনে আশ্রয়ন প্রকল্পের সহ-সভাপতি মোঃ আব্বাস আলীসহ অন্যান্য সদস্য উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ