• শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন |

আফ্রিকার দেশগুলোতে সৈন্য না পাঠানোর পরামর্শ

_thereport24-4সিসি ডেস্ক: জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর হয়ে আফ্রিকার দেশগুলোতে বাংলাদেশের কোনো সৈন্য এই মুহূর্তে না পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

জাতীয় সংসদ ভবনে মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে দেশগুলোতে ইবোলা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের আশঙ্কা থেকেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একইসঙ্গে তিন বাহিনীর কার্যক্রম পরিদর্শনেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ওই বৈঠকে।

কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান, মো. মাহবুবুর রহমান, ডা. দীপু মনি, ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ এবং হোসনে আরা বেগম অংশ নেন।

নৌবাহিনীর প্রধান ভাইস এ্যাডমিরাল এম. ফরিদ হাবিব, বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ার মার্শাল ইনামুল বারী, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী হাবিবুল আউয়ালসহ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীতে কর্মরত বাংলাদেশী সৈন্যদের কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়। কমিটির সদস্যরা যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশগুলোতে বাংলাদেশের সৈন্যদের সাহসী কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করেন।

তবে তারা বর্তমানে আফ্রিকার দেশগুলোতে সৈন্য না পাঠানোর পরামর্শ দেন। তাদের মতে, ইবোলা ভাইরাসের কারণে আফ্রিকার দেশগুলোর পরিবেশ অনুকূলে নেই। এ অবস্থায় এ সব দেশে সৈন্য পাঠানো সমীচীন হবে না।

এ সময় সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের কর্মকর্তারাও কমিটির সঙ্গে একমত পোষণ করে জানান, আগামী মার্চ মাসে দুটি টিম এ সব দেশে পরিদর্শনে যাবে। তাদের ফিরে আসার পর পরিবেশ অনুকূল মনে হলে সৈন্য পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে আজকের বৈঠকে সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর সার্বিক কার্যক্রম পরিদর্শনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংসদীয় কমিটি। তিন বাহিনীর কার্যক্রম সম্পর্কে বাস্তব অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্যই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানায় কমিটির একটি সূত্র। এর অংশ হিসেবে প্রথমে ১৪ জানুয়ারি সশস্ত্রবাহিনী বিভাগ পরিদর্শনে যাবে কমিটি। এরপর পর্যায়ক্রমে তিন বাহিনীর সদর দফতর পরিদর্শন করা হবে।

সূত্র জানায়, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি সেনা সদর, ১১ ফেব্রুয়ারি নৌ সদর এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি বিমানবাহিনীর সদর দফতর পরিদর্শন করবে কমিটি।

বৈঠকে সেনাবহিনী পরিচালিত সিএমএইচ হাসপাতালগুলোর সেবা কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়।

এ বিষয়ে সেনা প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া জানান, দেশের সব সিএমএইচ হাসপাতালগুলোতে বেসামরিক লোকের চিকিৎসার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। সিএমএইচ হাসপাতালে স্বল্পখরচে সংসদ সদস্যদের উন্নত চিকিৎসা সেবা দেওয়ারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

বৈঠকে সমুদ্র এলাকার বিভিন্ন সম্পদের সুরক্ষা এবং অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের সুফল নিরাপদভাবে জনগণের কাছে পৌঁছানোর লক্ষ্যে নৌবাহিনীর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার সুপারিশ করা হয়। এ ছাড়া দেশের ক্যাডেট কলেজগুলোতে শিক্ষার মান সমুন্নত রেখে সক্ষমতা অনুযায়ী শিক্ষার্থী সংখ্যা বৃদ্ধিরও সুপারিশ করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ