• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন |

ডিমলায় চিকিৎসক লাঞ্চিত: থানায় মামলা

Lanসিসি নিউজ: নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক চিকিৎসককে লাঞ্চিত করার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছ। বুধবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে চিকিৎসা নিতে আসা এক রোগীর সাথে টিকিটের টাকা দেয়া নেয়াকে কেন্দ্র করে কর্তব্যরত ডাক্তারের সাথে রোগীর বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতাল কতৃপক্ষ রাতে একটি মামলা দায়ের করেন। রাতেই পুলিশ তিনজনকে আটক করে আজ বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠায়। এ ঘটনার জেরে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা হতে দুপুর ১ টা পর্যন্ত ডাক্তাররা কর্মবিরতি পালন করেন। এর ফলে চিকিৎসা নিতে আসা সাধারন রোগীরা পড়েছে চরম বিপাকে। জানা যায়, বুধবার দুপুরের দিকে ডিমলা উপজেলার সদর ইউনিয়নের বাবুরহাট গ্রামের সরকারদলীয় নেতা আবুল কালাম আজাদের ছেলে সৈকত ইসলাম (১৮) শ্বাসকষ্টজনিত রোগের চিকিৎসা নিতে আসেন ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এ সময় হাসপাতালের জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত ডাঃ ইরফান রশিদ রোগীর নিকট টিকিটের টাকা চাইলে ভাংতি টাকা না থাকায় রোগী সৈকত পরে টাকা দেবে বলে চিকিৎসা দাবী করেন। কিন্তু ডাঃ ইরফান টিকিটের  টাকা ছাড়া তাকে চিকিৎসা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এনিয়ে ডাঃ ইরফানের সাথে রোগী সৈকতের বাকবিন্ডার এক পর্যায়ে রোগীসহ তার লোকজন ওই ডাক্তারের শার্টের কলার ধরে টেনে চেয়ার থেকে তোলেন এবং তাকে শারিরিকভাবে লাঞ্চিত করে। এ ঘটনায় ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ জেড এ সিদ্দিকী বাদী হয়ে সৈকত (১৮), ভাই সাকিল (২০) ও পিতা আবুল কালাম আজাদ (৪৫) কে নামীয় ও ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে ডিমলা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ০৭,তারিখ-১৪/০১/২০১৫। ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শওকত আলী জানান, মামলার ভিত্তিতে বুধবার রাতেই ডিমলা থানা পুলিশ এজাহার নামীয় তিন আসামীকে গ্রেফতার করে আজ আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। এ ব্যাপরে ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জেডএ সিদ্দিকী জানান, কর্মবিরতির ব্যানার টানানো হয়েলেও তারা রোগীদের চিকিৎসা দিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ