• সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০৯:৩৪ অপরাহ্ন |

এবার পূজা হবে সংসদে

ঢাকা:sarttoto650.gif এবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সরস্বতী পূজা। ঈদের জামাত, স্টার সানডে জাঁকজমকভাবে সংসদে নিয়মিত অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। তবে এবারই প্রথম হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিদ্যার দেবির পূজা উৎসব হতে যাচ্ছে সংসদ ভবনে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এর অনুমতি দিয়েছেন। ইতিমধ্যে পূজাকে ঘিরে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। আগামী ২৫ জানুয়ারি পূজা শুরু হবে।

সংসদে পূজা আয়োজনের জন্য স্পিকারের কাছে প্রস্তাব দেন সংসদ সদস্য (বরিশাল-৪) পঙ্কজ দেবনাথ। তিনি আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদকও। স্পিকার এমন প্রস্তাব পেয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিবেচনার জন্য পাঠান। প্রধানমন্ত্রীও এ প্রস্তাবে সায় দেন।

সংসদে পূজার এমন প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে সরকারের অংশীদার বিরোধীদল জাতীয় পার্টিও। দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘আমরা সব ধর্মের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। সবাই যার যার ধর্ম পালন করবে। পূজা আয়োজনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। এমন আয়োজন অসাম্প্রদায়িক চেতনার প্রকাশ।’

পূজার আয়োজক পঙ্কজ দেবনাথ  বলেন, ‘অতীতে কখনো সংসদ চত্বরে এমন আয়োজন হয়নি। এ সরকার অসাম্প্রদায়িক মনোভাব ধারণ করে। তাই এবারই প্রথমবারের মতো সংসদে পূজা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সংসদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ইস্টার সানডেও পালিত হয়। কিন্তু হিন্দুধর্মাবলম্বীদের কোনো পূজা করা হয় না। তাই আমি ওই প্রস্তাবটি দিই।’

এদিকে বছরের প্রথম অধিবেশন চলাকালীন এ পূজা অনুষ্ঠিত হবে বলে বেশ জমবে বলে ধারণা করছেন আয়োজকরা। পূজায় দিনভর অর্চনা এবং সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলবে। পূজায় অংশ নিতে সবার জন্য সংসদের গেট উন্মুক্ত থাকবে।

সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে জানা গেছে, পূজার আয়োজন নিয়ে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থাও নেয়া হবে সংসদে। সংসদের নিরাপত্তাকাজে নিয়োজিতদের সঙ্গে যুক্ত হবে বাড়তি সদস্যও। পূজায় বাইরের মানুষ আসার সুযোগ থাকবে বলে বাড়তি নিরাপত্তা।

এ বিষয়ে সংসদের সার্জেন্ট অ্যাট আর্মস কমোডর আশরাফ বলেন, ‘এটি একটি ধর্মীয় উৎসব। সংসদ এলাকা গুরুত্বপূর্ণ বলে এখানে সবসময় সবার প্রবেশের সুযোগ থাকে না। পূজা উপলক্ষে যেহেতু অনেকেই ঢোকার সুযোগ পাবে, সেজন্য নিরাপত্তায়ও বাড়তি সতর্কতা রাখা হবে।’

সংসদে প্রথমবারের মতো পূজা আয়োজন নিয়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বী সংসদ সদস্যরা সবচেয়ে বেশি কর্মব্যস্ত সময় সময় পার করছেন। তবে তাদের সঙ্গে অন্য ধর্মের সংসদ সদস্যরাও সহযোগিতা করছেন বলে আয়োজকদের সূত্রে জানা গেছে।

এ উৎসব সার্বজনীনভাবে সবার অংশগ্রহণে উদযাপিত হবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন আয়োজক পঙ্কজ দেবনাথ।

বাংলামেইল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ