• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ১২:৪৭ অপরাহ্ন |

চলচ্চিত্র ঐক্যজোটের আন্দোলন স্থগিত

fdc-thereport24বিনোদন ডেস্ক: উপমহাদেশীয় ভাষার চলচ্চিত্র বাংলাদেশে প্রদর্শন বন্ধের দাবিতে চলমান আন্দোলন স্থগিত ও কর্মবিরতি প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ঐক্যজোট’। ২৭ জানুয়ারি, মঙ্গলবার রিপোটার্স ইউনিটি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক সমিতির সহ-সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান, পরিচালক সমিতির মহাসচিব মুশফিকুর রহমান গুলজার, শিল্পী সমিতির সভাপতি শাকিব খান, সাধারন সম্পাদক মিশা সওদাগর, চিত্রনায়ক জায়েদ খানসহ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ঐক্যজোটের নেতৃবৃন্দ।
এ সময় মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, ‘আদালতের কোন অনুমতি না নিয়ে এ সিনেমাগুলো মুক্তি দেয়া হয়েছে। আমাদের আন্দোলন আমদানি কারকদের বিরুদ্ধে, প্রদর্শকদের বিরুদ্ধে নয়।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা  ইকবাল সোবাহান চৌধুরী, মাননীয় তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেছি। তারা আমাদের এ বিষয়টি দেখবেন বলে আশস্ত করেছেন। তাই আমারা আন্দোলন স্থগিত করেছি।’
গতকাল তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন চলচ্চিত্রের ঐক্যজোটের নেতৃবৃন্দ। আমদানিকৃত হিন্দি সিনেমাগুলোর বিষয়টি আদালতের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হবে বলে তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।
এই আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে চলচ্চিত্র ঐক্যজোট তাদের আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করে সেই সঙ্গে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে। তথ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টার সঙ্গে সাক্ষাৎকালে উপস্থিত ছিলেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, সোহানুর রহমান সোহান, মুশফিকুর রহমান গুলজার, সাঈদুর রহমান সাঈদ, রেজা লতিফ, আবু মুসা দেবু, শাকিব খান, মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান।
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ঐক্যজোট তাদের আন্দোলনের অংশ হিসেবে ২০ জানুয়ারি, বিএফডিসিতে সংবাদ সম্মেলন ও মানব বন্ধন করে এ সংগঠনটি। ২১ জানুয়ারি, বুধবার কাফনের কাপড় পরে রাস্তায় নামেন শিল্পী ও কলাকুশলীরা।
এর পর ২৩ জানুয়ারি, শুক্রবার রাজধানীর মধুমিতা এবং পূর্ণিমা সিনেমা হলসহ দেশের বেশকিছু হলের সামনে মানববন্ধন ও ঘেরাও কর্মসূচী পালন করে এ সংগঠনটি। তাদের দাবি পূরণ না হলে আরো কঠোর আন্দোলনে নামার হুমকি দেন সংগঠনের নেতা-কর্মিরা।
উল্লেখ্য, গত বছরের ৩ ডিসেম্বর, সেন্সর বোর্ড থেকে ওয়ান্টেড ছবিটি ছাড়পত্র পায়। তারপর ২৩ জানুয়ারি, শুক্রবার সারাদেশে ৪৭ টি হলে ছবিটি মুক্তি দেওয়া হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ