• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন |

সৈয়দপুরে বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনলোজি কার্যক্রম শুরু

GE DIGITAL CAMERAসিসি নিউজ: নীলফামারীর সৈয়দপুরে কার্যক্রম শুরু হলো বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি (বিএইউএসটি) এর। রোববার বেলা ১১টার দিকে নীলফামারীর সৈয়দপুর সেনানিবাসের বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে এর উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর এমপি।
এসময় সং®কৃতিমন্ত্রী বলেন, এখনকার শিক্ষার্থীরা শুধু পরীক্ষায় এ প্লাস পাওয়ার জন্য সারাদিন বইয়ে মুখ থুবড়ে পরে থাকে। এটা কোন জীবন হতে পারেনা। লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা ও সংস্কৃতি চর্চাও করতে হবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আবুল হোসেন এর সভাপতিত্বে এসময়  সেনাবাহিনীর ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও রংপুর এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল  মো. সালাহ্ উদ্দিন মিয়াজী পিএসসি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকল্প পরিচালক ও ইএমই সেন্টার এন্ড স্কুলের কমান্ড্যান্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কবিরুজ্জামান বিশেষ অতিথি ছিলেন।
এছাড়াও নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও সংসদের বিরোধী দলের হুইপ আলহাজ্ব শওকত চৌধুরী, নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব উদ্দিন সরকার ও জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন, জেলা পরিষদ প্রশাসক অ্যাডভোকেট মমতাজুল হক, নীলফামারী পৌরসভা মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদসহ সামরিক-বেসামরকি, রাজনৈতিক ও প্রশাসনের কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের ছাত্রছাত্রী ও তাদের অভিভাকগণ উপস্থিত ছিলেন।
বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি’র প্রকল্প পরিচালক ও ইএমই সেন্টার এন্ড স্কুলের কমান্ড্যান্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কবিরুজ্জামান জানান, মনোরম ও কোলাহলমুক্ত পরিবেশে সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানেই বিশ্ববিদ্যালয়টি গড়ে তোলা হয়েছে। দেশে বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি এবং কারিগরির উচ্চতর শিক্ষার প্রসারের লক্ষ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা। দারিদ্র্য কবলিত উত্তরাঞ্চলের কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে আর্থসামজিক উন্নয়নের পাশপাশি বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনে নতুন এই বিশ্ববিদ্যালয়টি বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে।
প্রাথমিক অবস্থায় কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এই তিনটি বিভাগ নিয়ে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হলেও পরবর্তীতে অন্যন্য বিভাগ চালু করা হবে। বর্তমান  তিনটি বিভাগে ৩শত জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নের সুযোগ পাচ্ছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ