• সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০১:৪১ অপরাহ্ন |

আসাদুজ্জামান নূরের সঞ্চালনায় ভাষাসৈনিক তোফাজ্জল হোসেন

top_Tofajjol-Hossain---Bela-1424343538বিনোদন ডেস্ক : দেশ টিভির ‘বেলা অবেলা সারাবেলা’ অনুষ্ঠানে এবারের অতিথি হয়ে এসেছেন ভাষাসৈনিক তোফাজ্জল হোসেন। এবারের পর্বটি সঞ্চালনা করছেন আসাদুজ্জামান নূর।

দেশের বিভিন্ন অঙ্গনের বরেণ্য, প্রাজ্ঞ এবং বয়সি নাগরিকদের বর্তমান জীবন এবং অতীত কর্মকান্ডের কথোপকথন নিয়ে এ অনুষ্ঠান। দেশের যারা সারা জীবন ধরে শিল্প-সাহিত্য, সংস্কৃতি, মননশীলতার চর্চা করে নিজেকে উন্নীত করেছেন এক ঈর্ষনীয় অবস্থানে, সারা জীবনের চর্চায় তিনি তৈরি করেছেন স্বকীয় এক পরিমন্ডল, যা থেকে উত্তরকালের নাগরিকগন পেতে পারেন উদ্দীপনা, অনুপ্রেরণা। অতিথি তার যাপিত জীবনের বিভিন্ন কথা তুলে ধরবেন এ অনুষ্ঠানে।

এছাড়াও থাকবে অতিথির বিগত দিনের সব কাজ, বর্তমান অবসরের ফুটেজ, তারকার কাছের মানুষদের মন্তব্য। অনুষ্ঠানটি শনিবার রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে প্রচারিত হবে দেশ টিভিতে।

উল্লেখ্য, রক্তের বিনিময়ে অর্জিত হয় মাতৃভাষা বাংলা। সেই আন্দোলনে সামিল ছিলেন যারা, তাদেরই একজন ভাষাসৈনিক তোফাজ্জল হোসেন। একাধারে যার খ্যাতি রয়েছে কবি, লেখক এবং সাংবাদিক হিসেবে। কবি হাসান হাফিজুর রহমান সম্পাদিত ‘একুশে ফেব্রুয়ারি’ সংকলনে ঐতিহাসিক যে দু’টি গান সংকলিত হয়েছিল তার একটির রচয়িতা তিনি।

তোফাজ্জল হোসেন এর জন্ম ১৯৩৫ সালের ৯ অক্টোবর কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার তালেশ্বর গ্রামের সম্ভ্রান্ত মিঞা পরিবারে। তার বাবা পান্দে আলী মিঞা এবং মা মঞ্জুরা বানু।

তিনি ঢাকার সেন্ট গ্রেগরিজ হাই স্কুল থেকে ম্যাট্রিক, জে.এন. কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট, এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স ও এমএ পাশ করেন। সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যমের বিভিন্ন বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া প্রভৃতি দেশে শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ নেন তিনি। কলম্বো বৃত্তির অধীনে সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম ব্যবস্থাপনায় পড়ালেখাও করেন।

ছাত্রজীবনেই ১৯৫৪ সালে ‘দৈনিক ইত্তেফাক’ পত্রিকায় সহ-সম্পাদক হিসেবে তার সাংবাদিকতায় হাতেখড়ি। তিনি দীর্ঘকাল দেশী-বিদেশী সংবাদপত্র ও তথ্য সার্ভিসে দায়িত্ব পালন শেষে ১৯৬৭ সালে সরকারী চাকরিতে যোগ দেন।

তার রচিত ‘হৃদয় রক্তরাগে’, ‘একুশ ভুবনময়’-সহ বেশকিছু কাব্যগ্রন্থ রয়েছে। এছাড়া কিছু গবেষণাধর্র্মী বই, প্রবন্ধ ও অনুবাদ গ্রন্থ রয়েছে তার।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি হোসনে হেনার সাথে পরিণয় সূত্রে আবদ্ধ হন। তাদের তিন ছেলে ও এক মেয়ে।

তোফাজ্জল হোসেন ২০১৩ সালে দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ‘একুশে পদক’-এ ভূষিত হন। এছাড়া বিভিন্ন সময় নানা ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে অনেক পুরষ্কার ও সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ