• মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন |

পার্বতীপুরে রেলওয়ে অনুসন্ধান কেন্দ্র নেই: বিপাকে বুকিং সহকারী

parbatipur_6065_0পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিম্ঞ্চলের বৃহৎ রেলওয়ে জংশন পার্বতীপুর রেল ষ্টেশনে  অনুসন্ধান কেন্দ্র না থাকায় যাত্রী সাধারনকে চরম হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে। প্রতিনিয়ত বুকিং সহকারীদের সংগে ট্রেনযাত্রীদের বাক-বিতান্ড লেগেই রয়েছে।
রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের বৃহৎ রেলওয়ে জংশন পার্বতীপুর থেকে প্রতিদিন প্রায় ৫০টি ট্রেনে যাত্রীরা পরিবার পরিজন নিয়ে ট্রেনে উঠা নামা করে। এছাড়াও মালামাল পরিবহন হয়ে থাকে । এই জংশনে প্রতি বছর প্রায় রাজস্ব আয়ের পরিমান প্রায় ৪ থেকে ৫ কোটি টাকা। কিন্ত ট্রেন সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্যাদি সরবরাহের জন্য আজও এখানে স্থাপিত হয়নি অনুসন্ধান কেন্দ্র। মাঝে মধ্যে বহিরাগত মানিক চন্দ্র নামের জনৈক ব্যাক্তি ট্রেনের সময় সূচী প্রচার করে। মানিক রেলওয়ে কোন কর্মচারী না হওয়ায় বেশী সময় বিনা টিকিটের যাত্রী ধরে টাকা আদায়ে ব্যস্ত থাকে। আর এ সময় ট্রেন যাত্রীরা বুকিং কাউন্টরে টিকেট নিতে এসে ট্রেনের সময় সূচী জানতে চায়। যাত্রীদের সময় সূচী বলতে না পারায় লেগে যায় বাক-বিতান্ড। যাত্রীরাও পরিবার পরিজন নিয়ে পড়ে যায় বিপাকে। পার্বতীপুর ষ্টেশনে কর্তব্যরত টিকিট ক্যালেক্টরদের মাইকে ট্রেনের সময় সূচী ঘোষনা করার বিধান থাকলেও তাদের কাজে অনিহা দেখা যায়। অপরদিকে প্যাছেঞ্জার ষ্টেশন ম্যাষ্টারও ট্রেন পরিচালনার কাজে ব্যস্ত থাকেন। শেষে যাত্রীরা আবার যেয়ে বিরক্ত করেন বুকিং সহকারীদের। বুকিং সহকারীরা টিকেট বিক্রি ছেড়ে যাত্রীদের সময় সূচী না বলার কারনে বুকিং  সহকারীরাও পড়ে যায় চরম বিপাকে। এ ধরনের ঘটনা নিয়ে যাত্রী রেল উর্ধত্বন কর্তৃপক্ষে নালিশ করলে ষ্টেশন মাষ্টারের চেম্বরে জনৈক বুকিং সহকারীকে ক্ষমা নিতে হয়েছে। কিন্তুু রেল কর্তৃপক্ষ ভেবেও দেখেননি যে,বুকিং সহকারীরা টিকেট বিক্রি নিয়ে কি ব্যস্ত থাকেন।
পার্বতীপুরের মতো একাটি গুরত্বপুর্ন রেলওয়ে জংশন ষ্টেশনে কোন অনুসন্ধান কেন্দ্র না থাকার ফলে দুর-দুরান্তে যাতায়াতকারী ট্রেন যাত্রীরা ট্রেন সংত্র“ান্ত তথ্যাবলীর জন্য বিভিন্ন দপ্তরে গিয়ে ধরনা ধরতে হয়। তার পরেও তারা সঠিক তথ্য থেকে বঞ্চিত হয়। অনেক সময় তাদেরকে গালমন্দও শুনতে হয়।ট্রেন সংক্রান্ত সঠিক তথ্যের জন্য ছুটাছুটি করে যাত্রী সাধারনকে হতে হয় চরম হয়রানীর শিকার। ট্রেন যাত্রীদের সুবিধার্থে এখানে একটি অনুসন্ধান কেন্দ্র স্থাপন প্রয়োজন বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ