• রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন |

ব্রেনের পাওয়ার বাড়াতে…

Exaস্বাস্থ্য ডেস্ক : পরীক্ষা চলছে। ভালো ফল করতে চান? একটু নিয়ম মানুন, খান স্পেশাল ডায়েট। ব্রেনের পাওয়ার বাড়বে। পরীক্ষার আগে রাত জেগে পড়া, টেনশন, টেনশনের চোটে অনবরত টুকটাক খাওয়া যাকে বলে স্ট্রেস ইটিং, সঠিক খাবার না খাওয়া অনিদ্রা ইত্যাদি কারণে উথাল-পাথাল হতে থাকে শরীর। ফলে একদিকে যেমন ওজন বাড়ে, পুষ্টির অভাবে ব্রেনের পাওয়ার কমে। পড়া মনে রাখতে অসুবিধা হয়। এই সমস্যা এড়াতে কাজে আসে দু-চারটে নিয়ম ও এগজাম ডায়েট।

এগজাম ডায়েট:
সকালে উঠে এক গ্লাস পানি খান। ব্রেন, শরীর ও ডাইজেস্টিব সিস্টেমকে সুন্দর ভাবে জাগিয়ে তোলার এ হল প্রথম ধাপ।

তারপর খান ফল। ফলে চর্বি কম থাকে, ফাইবার ও ন্যাচারাল সুগার থাকে বেশি। ওজন না বাড়িয়ে বহুক্ষণ এনার্জি, যোগাতে মুড ভালো করতে, এলার্টনেস ও মনোযোগ বাড়াতে এর জুড়ি নেই। প্রুন, কিসমিস, অ্যাপ্রিকট, ডুমুর, খেজুর জাতীয় শুকনো ফলও খুবই কাজের। সকালে খান। স্ন্যাকস হিসেবেও খান। আর সারা দিন ধরে পুষ্টি, এনার্জি ও মনোযোগ ধরে রাখুন।
দিনে দু-একবার পানি সৈন্ধব লবণ মিশিয়ে লেবু পানি খেতে পারেন। খেতে পারেন ডাবের পারি। শরীরে মিনারেলের ঘাটতি মিটিয়ে বহুক্ষণ মাথা তরতাজা থাকবে। ডাবের শাঁসও উপকারি।
দিনে ২-৩ কাপ হার্বাল বা গ্রিন-টি খান৷ কালো বা সাদা চা-ও খেতে পারেন। এই ধরনের চায়ে লো অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট ও ফ্ল্যাভোনয়েডস, যা মনে রাখার ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।
একেক বেলায় একেক রকম খাবার খান। সকালে আটার রুটি খেলে, দুপুরে খান লাল চালের ভাত, বিকেলে সুজি-চিঁড়ে-মুড়ি তো রাত্রে বাজরা, মকাই বা অন্য কোনও কিছুর রুটি। মূল খাবারের সঙ্গে সবুজ শাক-সবজি ও স্যালাড খান। পুষ্টির পাশাপাশি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের প্রভাবে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে। পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যেমন ডাল, বিনস, কল ওঠা ছোলা-মুগ, মাছ, ইত্যাদি খেলে ব্রেনে ডোপামিন ক্ষরণ বেড়ে বাড়বে চনমনে ভাব।

যা খাবেন না:
অতিরিক্ত কফি ও ক্যাফেইন সমৃদ্ধ ড্রিঙ্ক চলবে না। এতে স্টেরস হরমোন বেড়ে উদ্বেগ, ভয়, রাগ, নার্ভাসনেস বাড়ে। বাড়ে বুক ধড়ফড়, রক্তচাপ, অম্বল। ঘুম কমে যায়।
ময়দা ও চিনি খাওয়া কমান। এতে সাময়িক ভাবে এনার্জি বেড়েছে বলে মনে হয়। কিন্তু বেশি খেলে ক্ষতি হয় ব্রেন ও শরীরের। এনার্জির যোগানদার বি-ভিটামিনের পরিমাণ কমে ক্লান্ত, বিধ্বস্ত লাগতে পারে। ডিপ্রেসডও লাগে কখনও।
পড়ার একঘেয়েমি থেকে মুক্তি পেতে ভাজা বা জাঙ্ক ফুড খাবেন না। এতে ওজন যেমন বাড়বে, পুষ্টির অভাবে সাফার করবে ব্রেনও।

পরীক্ষায় ভালো করা নিয়ম:
সকালে মন ফ্রেশ থাকে, সে সময় কঠিন পড়াগুলো পড়ে নিন। এতে আপনারই ভারমুক্ত মনে হবে নিজেকে।
পড়তে পড়তে ক্লান্ত লাগলে খোলা হাওয়ায় হাঁটুন। অক্সিজেনের যোগানে ব্রেন চাঙা হয়ে উঠবে।
খাওয়া, ঘুম, পড়া ও রিল্যআক্সেশনের রুটিন করে সেই মতো চলুন। সেলফ কন্ট্রোল বাড়বে। টেনশন কম থাকবে।
ঘুমের সঙ্গে কম্প্রোমাইজ করলে মনোযোগ ও স্মৃতিশক্তি কমবে।
মধ্যরাতের আগের প্রতি একঘণ্টা ঘুম, মধ্যরাতের পরের প্রতি দু’ঘণ্টা ঘুমের সমতুল্য। কাজেই আগে ঘুমিয়ে সকাল-সকাল উঠে পড়লে ফ্রেশনেস বেশি থাকবে। স্মৃতিশক্তি ও মনোযোগ বাড়বে।
দিনের শেষভাগে তাজা থাকতে দুপুরে ১৫-৩০ মিনিট ঘুমোন। পাওয়ার ন্যাপের কিন্তু কোনও জুড়ি নেই। একে সময় নষ্ট ভাববেন না মোটেই।

উৎস: নতুন বার্তা


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ