• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন |

রাজারহাটে ২০ হাজার টাকায় ডিও!

kurigramরফিকুল ইসলাম, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম): কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলায় গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণা-বেক্ষণের লক্ষ্যে ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে বরাদ্দকৃত টিআর ও কাবিখা প্রকল্পের বরাদ্দকৃত চাল-গমের সরকারিভাবে প্রতি মে. টন চালের মূল্য ৩৫ হাজার ৪৮১ টাকা ও প্রতি মে. টন গমের মুল্য ৩০ হাজার ৪০৭ টাকা নির্ধারণ করা হলেও বাস্তবে এর চিত্রটা উল্টো। ডিও ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে প্রতি মে. টন চালের ডিও ১৮-২০ হাজার টাকা ও প্রতি মে. টন গম ১৭ হতে ১৮ হাজার ৫০০ টাকায় কিনছে। রাতারাতি ওইসব ডিও ব্যবসায়ীরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছে। মনে হচ্ছে যেন এসব দেখার কেউ নেই। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে গ্রামীণ অবকাঠামো মসজিদ-মন্দির, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তা মেরামতের লক্ষ্যে অত্র উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে প্রথম পর্যায়ে টিআর-এর ১৫৪.৩৯ মে. টন চাল বরাদ্দ এসেছে এবং এতে ১১০টি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এদিকে কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচী (কাবিখা) প্রকল্পে ১৫৮ মে. টন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে এবং ৭টি ইউনিয়নে ১১টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে। সরজমিনে জানা যায়, টিআর ও কাবিখা প্রকল্পের অর্ধেকেই সোলার নিতে নির্দেশনা দেয়া হলেও প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের কমিটির সভাপতি ও সদস্যরা ওই বরাদ্দের প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে অপারগতা  পোষণ করার চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে। উমর মজিদ ইউপি’র ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ফুলখাঁ মোত্তালিব মন্ডলের বাড়ি সংলগ্ন ওয়াক্তি নামাজ ঘর সংস্কারের জন্য টিআর’র ১ মে. টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু সেখানে বিদ্যুৎ থাকার পরও সোলার নেয়ার কথা বলা হয়েছে। এ নিয়ে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। একই ইউপি’র ২নং ওয়ার্ডে অবস্থিত বুড়ারপাঠ সার্বজনীন দুর্গা মন্ডপ সংস্কার কল্পে ১ মে. টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু সোলার নেয়ার কথা প্রকল্পে বলা হলে মন্দির কমিটি ওই প্রকল্প বাদ দেয়ার জন্য ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল ওহাব মন্ডলকে জানিয়েছেন। সদর ইউপি’র ৫নং ওয়ার্ডে অবস্থিত বোতলার পাড় জামে মসজিদ মেরামত করার লক্ষ্যে ১ মে. টন চাল বরাদ্দ দেয়া হলেও মসজিদে বিদ্যুৎ থাকার পরও সোলার উল্লেখ করা হয়েছে। এ নিয়ে ওইসব প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা নিয়ে দ্বিধা-দ্ব›দ্ব দেখা দিয়েছে। বুড়ারপাঠ সার্বজনীন দুর্গা মন্দিরের কমিটির একাধিক সদস্য এ প্রতিবেদককে বলেন, বর্তমান বাজারে চালের দর প্রতি মে. টন ৩৫ হাজার টাকা হলেও ডিও ব্যবসায়ীরা তা কিনছে মাত্র ১৮-২০ হাজার টাকায়। প্রতিটি সোলারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৭ হাজার ৫০০ টাকা। অফিস খরচসহ প্রতি টন ডিও নিতে খরচ পড়ে সাড়ে ২১ হাজার টাকা। তাহলে বলেন তো ওই টিআর নিয়ে ঘর থেকে গচ্ছা দিতে হবে। জেনে আমরা ইউপি চেয়ারম্যানকে বলেছি, আপনি প্রকল্পটি বাদ দিয়ে দেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ডিও ব্যবসায়ী এ প্রতিবেদককে বলেন, ১ মে. টন চাল বা গমের ডিও কিনে ৫ হাজার টাকা লাভ না করলে কিসের ডিও’র ব্যবসা করি। অপর দিকে অত্র উপজেলায় কাবিখা প্রকল্প বাস্তবায়নের নামে চলছে লংকা কান্ড। অন্যদিকে ৪০ দিনের কর্মসৃজন প্রকল্পের শ্রমিক দিয়ে রাস্তা মেরামত করিয়ে তা কাবিখা প্রকল্পের আওতায় নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে রাজারহাট উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ময়নুল হক বলেন, বর্তমান ডিও’র বাজার অনুযায়ী সোলার কিনতে প্রকল্পের কমিটিকে হিমশিম খেতে হচ্ছে এটা সত্যি। আসলে সরকারিভাবে বাজার মূল্য অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে নির্ধারণ করা হয়ে থাকে বলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান। আর কাবিখা প্রকল্পে ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচীর শ্রমিক দিয়ে মেরামতের রাস্তার বিষয়টি সঠিক নয়। রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল মোতালেব সরকার বলেন, ডিও কে কোন দরে বিক্রি করছে, সেটা তাদের বিষয়। আমি প্রকল্পের সভাপতিদের কাছ থেকে স্ব-স্ব প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ বুঝে নিব। উল্লেখ্য, ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে সরকারিভাবে বরাদ্দকৃত টিআর-কাবিখা প্রকল্প বাস্তবায়নে ৭টি ইউনিয়নে চলছে হ-য-ব-র-ল অবস্থা। প্রকল্পগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসী।

রাজারহাটে লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রকল্পের প্রশিক্ষণ শুরু
দেশের প্রথম কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার দু’টি ইউনিয়ন রাজারহাট সদর ও চাকিরপশার ৪০ জন শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের মাঝে লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রকল্পের আওতায় বুধবার দুপুরে এম. আই ডিগ্রী কলেজের হলরুমে ১৫ দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক এবিএম আজাদ। অধ্যক্ষ মো. সাইদুর রহমান সরকারের সভাপতিত্বে ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার চঞ্চল কুমার ভৌমিকের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন-রাজারহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল হাশেম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল মোতালেব সরকার, ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদ সরওয়ার্দ্দী বাপ্পী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুর রশিদ, নর্থ বেঙ্গল আইটি লি. রাজশাহী’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শফিকুল হক হীরা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. কফিল উদ্দিন প্রমূখ।

রাজারহাটে যুবদল ও ছাত্রদলসহ গ্রেপ্তার ৪
কুড়িগ্রামের রাজারহাটে নাশকতার অভিযোগে মঙ্গলবার রাত ১১টায় থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে যুবদল ও ছাত্রদলের ৩ নেতা-কমীসহ একাধিক চুরি মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত ১ আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে। রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুর রশিদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত ১১টায় যুবদল কর্মী শরিফুল ইসলাম (৩২), ছাত্রদল কর্মী আব্দুল কুদ্দুস (২৪), জসিমুদ্দিন (জিম) (১৮) কে সদর ইউপি’র রাজারহাট-কুড়িগ্রাম সড়কের নাওডোবা নামক ব্রিজ এলাকা থেকে ৩ জনকে নাশকতার সন্দেহে আটক করা হয়। আটককৃতদের বুধবার সকালে ১৫১ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে। এদিকে একাধিক চুরি মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী মাহবুব মন্ডল আপেল (২৮) কে রাজারহাট কারিগরি বাণিজ্যিক কলেজ এলাকা থেকে আটক করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ