• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন |

ডেসটিনির কার্যালয়ে মালামাল লুটের অভিযোগে মামলা

Desyinyঢাকা: ডেসটিনি গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ের প্রায় ৬ কোটি টাকার মালামাল লুটের অভিযোগে আদালতে একটি মামলা করেছেন প্রতিষ্ঠানটির চিপ অডিটর মো. মাহবুবুর রহমান।

রাজধানীর কলাবাগানন্থ নাসির ট্রেড সেন্টারে ওই চুরি ও লুটপাটের অভিযোগে ঢাকা মেট্রোপলিটন চিফ আদালতে মঙ্গলবার এ মামলা দায়ের করা হয়।

ঢাকা মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হক অভিযোগের শুনানি গ্রহণের পর কলাবাগান থানাকে অভিযোগ তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলায় নাসির ট্রেড সেন্টারের মালিক গোলাম হোসেন ও গোলাম মহিউদ্দিন, বোটানিক অ্যারোমার মালিক বেলায়েত হোসেন এবং ভিভেক সিকিউরিটি অ্যান্ড সার্ভিসেসের নির্বাহী পরিচালক ফখরুদ্দিন আহমেদকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি এবং ডেসটিনি ট্রি প্ল্যানটেশন লিমিটেডসহ ৩৫টি প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে ডেসটিনি গ্রুপ প্রতিষ্ঠিত। কলাবাগানন্থ নাসির ট্রেড সেন্টারে লেভেল ৬,৭, ৮, ১১ ও ১৩ নিয়ে ডেসটিনি গ্রুপের প্রধান কার্যালয়। লেভেলগুলোর মধ্যে ১১ খরিদকৃত, বাকি ফ্লোরগুলো ৫ কোটি টাকা জামানত রেখে ভাড়া নিয়ে এবং ফ্লোর খরিদ বাবদ ২০ কোটি ৫০ লাখ টাকা প্রদান করে ভোগ দখলরত।

দুর্নীতির মামলায় আদালত ডেসটিনি গ্রুপের সব সম্পাদ ক্রোক করে তাতে পুলিশকে রিসিভার নিয়োগ করে। পুলিশ রিসিভার নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে সম্পদ ও প্রতিষ্ঠানের আয় নিজেরাই ইচ্ছামতো ভোগদখল করেছে। তারা এ পর্যন্ত আদালতে কোনো আয়-ব্যায়ের হিসাব দাখিল করেনি। রিসিভারের গোচরেই ডেসটিনি গ্রুপের সম্পদ বেহাত হয়ে যাচ্ছে। তার ধারাবাহিকতায় প্রধান কার্যালয়ের ডাটাবেজ ও সার্ভার সিসটেম ধ্বংস করার জন্য গত ২৩ আগস্ট ও ২১ নভেম্বর ওই আসামিরা প্রধান কার্যালয়ের ৫০ কোটি টাকার মালামাল লুট করে। ওই ঘটনায় আসামিদের বিরুদ্ধে কলাবাগান থানায় একটি মামলা হয়। ওই মামলায় আসামিরা জামিন পেয়ে গত ১২ ফেব্রুয়ারি ফের লেভেল ৭ এর তালা ভেঙে প্রায় ৬ কোটি টাকার মূল্যমানের মালমাল লুট করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ