• মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০২:৪৮ অপরাহ্ন |

মিশরে নতুন রাজধানীর পরিকল্পনা

jakia..ezypt_57826আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কায়রোর পরিবর্তে মিশরে নতুন একটি রাজধানী তৈরির পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। কায়রোর পূর্বদিকে ওই রাজধানীতে পার্লামেন্ট, মন্ত্রীদের কার্যালয় আর দূতাবাসগুলো স্থানান্তরিত হবে। সিঙ্গাপুরের আয়তনের সমান এবং প্রায় ৫০ লাখ মানুষের বসবাসের উপযোগী করে শহরটি নির্মাণ করা হবে।
মিশরের অর্থনীতি বিষয়ক একটি সংবাদ সম্মেলনে নতুন রাজধানী তৈরির এই ঘোষণাটি দেয়া হয়। কায়রো আর লোহিতসাগরের মাঝামাঝি কোন স্থানে নতুন শহরটি নির্মিত হবে। তবে এখনো শহরটি কোন নাম ঠিক করা হয়নি।
নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এর মধ্যেই ১২হাজার কোটি ডলার সহায়তার আশ্বাস পাওয়া গেছে বলে দেশটির সরকার জানায়। কুয়েত, সৌদি আরব আর সংযুক্ত আরব আমিরাত এই অর্থ দেবে।
কায়রোর ভিড় এবং পরিবেশর উপর চাপ কমাতেই নতুন এই রাজধানী তৈরির পরিকল্পনা করা হচ্ছে। শহরটির পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত এক কর্মকর্তা বলেন, নতুন শহরটি হবে অনেক জনবান্ধব। কায়রোর ঐহিত্য ও নকশার উপর ভিত্তি করেই নতুন শহরটি তৈরি করা হবে এবং সেখানে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধাই থাকবে।
এই শহরটি তৈরি হলে তা মিশরের অর্থনীতির জন্য সুবাতাস আনবে বলে ওই কর্মকর্তার দাবি। কারণ সেখানে চার হাজারের বেশি নতুন চাকরির সুযোগ সৃষ্টি হবে। শহরটিতে হিথরোর চেয়ে বড় একটি বিমানবন্দরও থাকবে।
অতীতেও মিশরে এরকম বড় প্রকল্প নেয়া হলেও, আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় সেগুলো শেষপর্যন্ত আলোর মুখ দেখেনি। তবে বর্তমান সরকার এটিকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছে। কারণ অর্থনীতির গতি ফেরাতে না পারলে মিশরের সংকট আরো বাড়বে।
এদিকে আরব গণজাগরণ শুরু হওয়ার পর থেকেই মিশরে বিদেশী বিনিয়োগ কমে গেছে। সেই বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতেই সরকার নতুন এই শহর স্থাপনসহ আরো বেশ কয়েকটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ