• রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন |

ন্যাড়া বেলতলায় যায় একবারই!

Ganguli-1426593497খেলাধুলা ডেস্ক : ‘ন্যাড়া বেলতলায় যায় একবারই!’ এমন একটি প্রবাদ আছে। ক্রিকেটের ‘বেলতলার ন্যাড়া’ তাহলে কে? সৌরভ গাঙ্গুলি জানালেন, চলতি বিশ্বকাপে সেই ন্যাড়া নাকি ভারতীয় ক্রিকেট দল। ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক কথাটি এমনিতেই বলেছেন, তা কিন্তু নয়। নেপথ্যে অবশ্য উল্লেখযোগ্য কারণও আছে।

আগামী ১৯ মার্চ মেলবোর্নে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে ভারত। ওই ম্যাচকে সামনে রেখে ভারতকে ‘বেলতলার ন্যাড়া’ বলে আখ্যা দিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি! ক্রিকেটের বড় কোনো আসরে বাংলাদেশের বিপক্ষে ‘ন্যাড়া’র (ভারত) বেলতলায় যাওয়া শুরু ২০০৭ সালে। বিশ্বকাপের সেই আসরে ভারতীয় দলের ওপেনার ছিলেন গাঙ্গুলি। সেবার বাংলাদেশের কাছে হেরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে সরাসরি দেশের বিমান ধরেছিল ভারত।

এরপর অবশ্য ২০১২ সালেও ন্যাড়া বেলতলায় গিয়েছিল। এশিয়া কাপের খেলায় বাংলাদেশের কাছে পরাজিত হয়ে ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন ধূলিস্মাৎ হয়ে যায় ভারতের। এই দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হয়েছিল মার্চ মাসে। এবার সেই মাসেই দুই দল মুখোমুখি হচ্ছে। সুতরাং পরিসংখ্যান বলছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার মাসে বোধ হয় এবারও টাইগারদের হারাতে পারবে না ভারত।

কিন্তু এমন বিশ্লেষণের সঙ্গে একমত নন ভারতের কিংবদন্তি সৌরভ গাঙ্গুলি। উল্টো জানিয়ে রাখলেন, ন্যাড়া বেলতলায় একবারই যায়। তার মানে ২০০৭ কিংবা ২০১২ সালের পুনরাবৃত্তি ঘটবে না। ইতিহাস বদলে দিয়ে বাংলাদেশকে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ভারত! সময়ই তার সঠিব উত্তরটি বলে দেবে।

এদিকে ২০০৭ সালে বিশ্বকাপে টাইগারদের কাছে পরাজিত হওয়ার স্মৃতি কখনো ভুলতে পারবেন কি সৌরভ? শোনা যাক তার মুখ থেকেই, ‘পুরানো কাদা ঘেঁটে লাভ কী? আবার মন খারাপ করতে চাই না। তবে  জীবনে যত ম্যাচ হেরেছি, তার মধ্যে ওই ম্যাচটাও থাকবে। আমি রান পেয়েও ভারত হেরেছিল, এমন ঘটনাও তো কম নেই। তবুও ২০০৭-এর পোর্ট অফ স্পেনের কুইন্স পার্ক ওভালে হারার ব্যাপারটা মনে পড়লেই কষ্ট পাই। মনটা ভীষণ খারাপ হয়ে যায়।’

৮ বছর আগের ওই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৯১ রান করেছিল ভারত। এর মধ্যে সৌরভ গাঙ্গুলির অবদান ৬৬ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে সাকিব-তামিম-মুশফিকের হাফ সেঞ্চুরিতে মাত্র ৫ উইকেট হারিয়ে ৯ বল হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

এই লজ্জাজনক হারের জন্য দলের ব্যাটিং ব্যর্থতার পাশাপাশি ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেটকেও দুষলেন সৌরভ, ‘কুইন্স পার্ক ওভালের উইকেটটা ভালো ছিল না। এ ছাড়া ব্যাটিং-ব্যর্থতাও আমাদের লজ্জায় ডুবিয়েছিল। তা না হলে কি ১৯১ রানে আমাদের মতো দল অলআউট হয়ে যায়?’

৮ বছর আগের ওই ম্যাচের সঙ্গে এবার ১৯ মার্চ কোয়ার্টার ফাইনালের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলি, ‘বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা এবারও মরণ কামড় দিতে চাইবে। তবে এটাও আপনাকে মনে রাখতে হবে, ন্যাড়া বেলতলায় একবারই যায়। তাই না? ২০০৭ সালের ভুল, ২০১৫তে  করবে না ভারত।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ