• শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন |

দিনাজপুরে হেপাটাইটিস-বি ভাইরাস ভ্যাকসিনেশন সেমিনার অনুষ্ঠিত

Hepatitis-B Seminer Pic 18-03-2015দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরে হেপাটাইটিস্-বি ভাইরাস (জন্ডিস) পরীক্ষা ও ভ্যাক্সিনেশন সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোনালী ব্যাংক দিনাজপুর কর্পোরেট শাখায় বিটিএফ’র উদ্যোগে এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয।

বুধবার দুপুরে শহরের নিমতলাস্থ দিনাজপুর সোনালী ব্যাংক কর্পোরেট শাখা কার্যালয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে সেমিনারের উদ্বোধন করেন দিনাজপুর সোনালী ব্যাংক কর্পোরেট শাখার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার এসএম মছির উদ্দীন ওয়ারেছী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা কমল কুমার রায়, এসএম নুরুল্লাহ, মো. জালাল উদ্দীন,   মো. ইসমাইল হোসেন, মো. কাছিম উদ্দিন, মোঃ লিয়াকত আলী, মোঃ নুরুল হুদা, বিটিএফ’র প্রকল্প পরিচালক মো.  মোকছেদুল মমিন, পরিচালক উন্নয়ন মো. মহিবুবুল হক, পরিচালক উন্নয়ন রেজাউল করিম রানা, স্বাস্থ্য সহকারী মালতি চক্রবর্তী, সাবরিলা আক্তার, ইয়ামিন আলী সরকার, মনিষা নাসরিন, নূর বানু প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্যে বিটিএফ’র প্রকল্প পরিচালক মো. মোকছেদুল মমিন বলেন, হেপাটাইটিস-বি একটি ক্ষুদ্র ভাইরাস। এটি শরীরে একবার প্রবেশ করলে লিভার কোষের ভিতরে অবস্থান নেয়। তখন সেলের ভিতর থেকে হাজার হাজার ভাইরাস তৈরী হয়। ভাইরাসে আক্রান্ত কোষগুলো মারা যায়, ফলে লিভারের কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়। আর তখনই লিভার ক্যান্সার/সিরোসিস হয়ে থাকে। এ কারণে হেপাটাইটিস-বি ভাইরাসকে মরণব্যাধিও বলা হয়।

পরিবারের একজন সদস্য অক্রান্ত হলে অন্যরাও দ্রুত আক্রান্ত হতে পারে। হেপাটাইটিস-বি ভাইরাসকে এক ধরনের  ছোঁয়াচে ভাইরাসও বলা যেতে পারে।  এ রোগের লক্ষন প্রকাশের পূর্বে একমাত্র রক্তের পরীক্ষার মাধ্যমে প্রথম স্তরে ধরা পড়লে চিকিৎসার মাধ্যমে ভাল হওয়ার সুযোগ রয়েছে। অন্যথায় এ রোগের লক্ষন একবার প্রকাশ পেলে বাঁচার আর কোন উপায় থাকে না। তাই এ মরণব্যাধি হতে রক্ষা পেতে আমাদের সকলের উচিৎ অতি দ্রুত রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে প্রতিরোধমূলক টিকা/ভ্যাক্সিন গ্রহণ করা এবং অন্যকে উৎসাহিত করা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ