• মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন |

বিএনপি মানুষ পুড়িয়ে ক্ষমতায় যেতে পারবে না- সংস্কৃতি মন্ত্রী

Nilphamari  Nur- Pic-2সিসি নিউজ: সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর এমপি বলেছেন, “১৯৭১ সালে গণহত্যা চালিয়ে যেমন পাক হানাদার বাহিনী দেশের স্বাধীনতা ঠেকাতে পারেনি তেমনি বিএনপি-জামায়াত জোটও আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মেরে ক্ষমতায় যেতে পারবেনা। তাদের এই অপচেষ্টা প্রতিহত করেছে এদেশের সাধারণ মানুষ।
বৃহস্পতিবার বিকেলে নীলফামারী জেলা সদরে গোড়গ্রাম স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে ৬১ লাখ ১৪ হাজার টাকা ব্যয়ে কলেজের নবনির্মিত একাডেমিক ভবন উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ সব কথা বলেন।
মন্ত্রী ২০ দলীয় জোটের সমালোচনা করে বলেন, ঘরে বসে বিবৃতি দিয়ে হরতাল ডেকে, আর হরতালের নামে পেট্রলবোমার আগুনে মানুষ পুড়ে মেরে ক্ষমতায় যাওয়া যায় না। আন্দোলনের নামে আপনারা হরতাল ডেকে ঘরে বসে আছেন, আরাম আয়েশ করছেন এটা আপনাদের কেমন আন্দোলন ? আর আপনারা বলেন পুলিশ রাস্তায় দাঁড়াতে দেয়না।
তিানি উল্লেখ করে বলেন, আন্দোলন করতে হলে মাঠে থাকতে হয়, জনসমর্থন অর্জন করতে হয়। পুলিশ আপনাদের রাস্তায় নামতে দিবে না এটাই স্বাভাবিক। জনসমর্থন থাকলে পুলিশ ঠেকাতেও পারবেনা। কিন্তু আপনাদের সে জনসমর্থন নেই।
আওয়ামী লীগের আন্দোলন সংগ্রামের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমরাও আন্দোলন করেছি, আমাদেরও রাস্তায় নামতে দেওয়া হয়নি। এরপরও আমরা রাস্তায় নেমে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। পুলিশ আমাদের মেরেছে কিন্তু আমরা পুলিশকে মারি নাই। জনগণ আমাদের সাথে ছিল তাই আমরা সফল হয়েছি।
গোরগ্রাম স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালনা কমিটির সভাপতি তরিকুল ইসলাম গোলাপের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মমতাজুল হক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আলিমুদ্দীন বসুনিয়া, সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমান, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট অক্ষয় কুমার রায়, জেলা যুবলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রমেন্দ্র বর্ধণ বাপি, সাধারণ সম্পাদক শাহীদ মাহমুদ,পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টু, সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন মুন, গোড়গ্রাম স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মাহফুজুল হক, গোড়গ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদ আলী খান প্রমুখ।
সংস্কৃতি মন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত হত্যার রাজনীতি করে। আমরা হত্যার রাজনীতি করি না, কখনো করবো না। একারণে যত হামলা হয়েছে আমাদের উপর হয়েছে। এসব হামলায় আওয়ামী লীগের এসএম কিবরিয়া, আহসানুল্লাহ্ মাষ্টার, আইভি রহমানসহ অসংখ্য নেতা কর্মী নিহত হয়েছেন। তাদের হামলা থেকে রেহাই পাননি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও। আর ২০ দলীয় জোটের নেত্রী বিএনপি প্রধান বেগম খালেদা জিয়া একবারও হামলার শিকার হননি।
অভিভাবক ও সুধী সমাজের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নূর বলেন, শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষা ব্যবস্থায় যুগান্তকারী পরিবর্তন এনছেন। এখন ঘরে বসেই বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ফরম পুরন করতে পারে ছাত্রছাত্রীরা, স্বল্প মূল্যে ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করায় সবাই এখন ঘরে বসে তার কর্মকান্ড পরিচালনা করেত পারছেন। বছররের শুরুতেই কোমলমতি ছাত্রছাত্রীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া এই আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই সম্ভব হয়েছে। মেয়েদের বিনামুল্যে লেখাপড়ার পাশাপাশি সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে মেয়েদের সমান অধিকার নিশ্চিত করায় দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে। তাই দেশের উন্নয়নে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিজ নিজ অবস্থান থেকে তদায়িত্ব পালন করুন।
এর আগে সকালে মন্ত্রী নীলফামারী সদর উপজেলাকে শতভাগ স্যানিটেশনের আওতায় আনতে তিন হাজার হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে একটি করে ল্যাট্রিন  বিতরণ করেন। এর পর একই মাঠে সম্প্রতি জেলা সদরের গোড়গ্রাম, টুপামারী, চওড়াবড়গাছা, খোকশাবাড়ি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ৩৭টি পরিবারের মাঝে এক বান্ডিল করে ঢেউটিন ও নগদ তিন হাজার করে টাকা বিতরণ করেন তিনি। এসময় জেলা প্রশাসক মো. জাকীর হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক অ্যাডভোকেট মমতাজুল হক, জনস্বাস্থ্য বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল কাদের, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেত আলী, সদর উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফোরামের সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রশিদ মঞ্জু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ