• বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৫৩ অপরাহ্ন |

বিরামপুরে বট-পাকুড়গাছের বিয়ে!

Bot-pakur photo-1বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: আদিকালের কুসংস্কারকে আঁকড়ে ধরে বিরামপুর পৌরশহরে ধূমধামের সাথে শুক্রবার (২০ মার্চ) বিকেলে বটগাছ ও পাকুড়গাছের বিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিয়ে বাড়িতে মিষ্টি বিতরণ ও খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন সহ ৩ দিন ধরে চলেছে নাচগান ও বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। আধুনিক যুগে এমন আজব বিয়ে দেখতে শত শত মানুষের ভিড় জমে যায়।

সরেজমিন বিয়ে বাড়ি ঘুরে জানা গেছে, বিরামপুর পৌর শহরের পূর্বপাড়া মহল্লার শহিদুল ইসলামের স্ত্রী মাছিয়া বেগমের বাড়ির উঠানে ২ বছর আগে একটি বট এবং তার কিছুদিন আগে একটি পাইকড় গাছের জন্ম হয়। বাড়িতে একসাথে বট-পাকুড়ের গাছ জন্ম নিলে তা মঙ্গলের প্রতীক ভেবে মাছিয়া বেগম গাছ দু’টির পরিচর্যা করতে থাকেন।

মাছিয়া বেগম (৫০) জানান, তিনি নাকি পূর্ব পুরুষের মূখে শুনেছেন, এক বাড়িতে বট-পাকুড়ের গাছ জন্মালে তাদের বিয়ে দিতে হয়। তাই তিনি গ্রামের সকলকে আমন্ত্রণ জানিয়ে ধূম-ধামের সাথে বট-পাকুড় গাছের বিয়ে দিচ্ছেন। বিয়ে উপলক্ষ্যে তিন দিন ধরে চলছে নাচ-গান ও বিয়ে আনুষ্ঠানিকতা। বর হিসাবে পাকুড় গাছকে পরানো হয়েছে নতুন লুঙ্গি-গামছা। আর কনে হিসেবে বট গাছকে পরানো হয়েছে নতুন লাল পেড়ে হলুদ শাড়ি। বিয়ের দিন শুক্রবার সকাল থেকেই ঐ বাড়িতে শত শত উৎসুক মানুষ বর-কনেকে দেখতে ভিড় জমায়। উৎসুক দর্শকদের খাওয়ানো হয় পান-শুপারী আর বিয়ে অনুষ্ঠানে যোগদানকারীদের খাওয়ানো হয় গোস্ত-ভাত। আগামী বর্ষকালে কথিত বর-কনেকে বাড়ি থেকে তুলে অন্য জায়াগায় একই গর্তে পুনঃরোপন করা হবে বলে জানান মাছিয়া বেগম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ